এসএম হলের বারান্দা ফাটল দেখভালে কমিটি

এসএম হলের বারান্দা ফাটল দেখভালে কমিটি
এসএম হলের বারান্দা ফাটল দেখভালে কমিটি  © ফাইল ফটো

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) সলিমুল্লাহ মুসলিম (এসএম) হলের দ্বিতীয় তলার বারান্দা ফাটল দেখভালে কমিটি গঠন করা হয়েছে। হলের প্রভোষ্ট অধ্যাপক মো. মজিবুর রহমানকে আহ্বায়ক করে ছয় সদস্যবিশিষ্ট এ কমিটি গঠন করা হয়।

মজিবুর রহমান জানান, এসএম হলের দ্বিতীয় তলার বারান্দায় এই ফাটল ২০০০ সাল থেকে। এটি ক্রমান্বয়ে বড় হতে হতে ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠেছে। গত জুলাই আগষ্টে করা প্রতিবেদনের ভিত্তিতে উপাচার্য ছয় সদস্যের পর্যবেক্ষক কমিটি গঠন করে দেন।

তিনি বলেন, কমিটির বুয়েটের বিশেষজ্ঞরা হলের এই অংশসহ আরও ২৫-৩০টি রুমে শিক্ষার্থীদের রাখতে নিষেধ করেন। সেই নির্দেশনা অনুযায়ী ছাত্রদের হলের ওই অংশ থেকে সব আসবার সরিয়ে নেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

অধ্যাপক মজিবুর বলেন, এরই মধ্যে বারন্দার ৭০ শতাংশ শিক্ষার্থীকে সিট বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। যারা এখনো সিট পায়নি, তাদের হল অফিসে যোগাযোগ করতে বলা হয়েছে। তিনি আরও জানান, বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ হলের নকশা তৈরি করে দিতে বলেছে। পুরাতন ও ঐতিহ্যবাহী হল বলে এর সংস্কারেও সময় লাগবে। সংস্কারের জন্য আলাদা কমিটি গঠন করা হবে।

ঐতিহ্যবাহী এই হলের বারান্দা প্রথম ও দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রদের গণরুম হিসেবে ব্যবহৃত হচ্ছিল। ফাটল দেখা দেওয়ার পর ঝুঁকি এড়াতে গত সোমবার এক জরুরি বিজ্ঞপ্তিতে জরুরি ভিত্তিতে মালপত্র সরিয়ে নেওয়ার নির্দেশ দেয় হল কর্তৃপক্ষ।

এতে বলা হয়, সলিমুল্লাহ মুসলিম হলের দক্ষিণ ব্লকের দক্ষিণ ও পশ্চিমের বারান্দায় ফাটল দেখা দিয়েছে। ওই বারান্দায় কোনোপ্রকার খাট বা বিছানাজাতীয় ভারী আসবাবপত্র রাখা অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ এ ছাড়া বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বারান্দায় কোনো ছাত্র অবস্থান করতে পারবে না, তাই আগামী ৭ অক্টোবরের মধ্যে বারান্দায় রাখা বিছানাপত্র ও খাট সরিয়ে নিতে ছাত্রদের নির্দেশনা দেওয়া হলো।

নির্ধারিত সময়ের মধ্যে ছাত্ররা নিজ দায়িত্বে মালপত্র না সরালে কর্তৃপক্ষ সেসব সরিয়ে ফেলবে বলে বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়। একই সঙ্গে বারান্দায় অবস্থানরত ছাত্রদের থাকার সিট পেতে দ্রুততম সময়ের মধ্যে হল অফিসে যোগাযোগ করতে বলা হয়েছে।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ