একমাস ধরে নিখোঁজ জাবি ছাত্র রাজু

অপহরণ
রাজু ও তার ছোট্ট মেয়েটি  © ফাইল ফটো

তাবিয়া জান্নাত, বয়স মাত্র ১৫ মাস। এটুকু বয়সেই সে বাবা-মা, দাদা-দাদি ডাকতে পারে। তার ডাকে সাড়া দিয়ে কাছে এসে আদর করেন পরিবার ও নিকটাত্মীয়রা। সবাইকে পেলেও তাবিয়ার ডাকে সাড়া দেয় না বাবা। এক মাস ধরেই পিতার স্নেহ থেকে বঞ্চিত ছোট্ট এই শিশুটি।

তাবিয়ার বাবা জাহিদ হাসান রাজু (২৭) জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) রসায়ন বিভাগের ২০১২-১৩ সেশনের (৪২ ব্যাচ) শিক্ষার্থী। স্নাতক শেষ হলেও বাকি রয়েছে স্নাতকোত্তর পরীক্ষা। গ্রামের বাড়ি বরগুনা জেলার পাথরঘাটা থানার দক্ষিণ গোলবুনিয়া গ্রামে। করোনা মহামারিতে বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ থাকায় রাজধানীর মিরপুরের একটি মেসে ওঠেন জাহিদ। নিচ্ছিলেন সরকারি চাকরির প্রস্তুতিও।

গত ২৪ জুন টিউশনি করতে বের হয়ে মিরপুর-৬ থেকে নিখোঁজ হন তিনি। রাজুর স্ত্রী হাফসা আক্তার বলেন, নিখোঁজের পর অনেক থানা-পুলিশ করেছি। কিন্তু এক মাস পার হলেও সে আর ফেরেনি। বাবার পথ চেয়ে আমার ১৫ মাস বয়সী মেয়েটা অসুস্থ হয়ে পড়েছে। তাবিয়া সারাক্ষণ আব্বা আব্বা বলে ডাকে। মেয়েকে বোঝানোর মতো মানসিক শক্তি হারিয়ে ফেলেছি আমি।

তিনি আরও জানান, ২৬ জুন রাজুর রুমমেট মিজানুর রহমান পল্লবী থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন। পরে নিখোঁজের খবর শুনে আমরা ঢাকায় আসি। আমার ভাই কামাল হোসেন ২৮ জুন আবারও পল্লবী থানায় জিডি করেন। এরপর আমাদের পরিবার বিভিন্ন আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে কথা বলে। কিন্তু কোনো কাজ হয়নি।

রাজুর বাবা বৃদ্ধ। তার অপহরণের খবর শুনে ২৬ জুন দাদি মারা গেছেন। রাজুর মা আকলিমা বেগম বলেন, আমরা তার উপার্জনের ভরসায় ছিলাম। সে আমাদের একমাত্র সম্বল। আমি সরকারের কাছে অনুরোধ করি তাকে ফিরিয়ে দিতে।

এ বিষয়ে পল্লবী থানার উপ-পরিদর্শক জহির আহমেদ বলেন, আমরা অনুসন্ধান চালিয়ে যাচ্ছি এবং রাজুর পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছি। খোঁজ মিললেই জানানো হবে। ডিবি শাখাকেও এ ব্যাপারে অবহিত করেছি। আশা করি, শিগগির খবর পাওয়া যাবে।

তিনি আরও জানান, প্রতারকেরা রাজুর মিথ্যা খবরের প্রলোভন দেখিয়ে পরিবারের কাছ থেকে ২০ হাজারের মতো টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। সেটা পুলিশের কাছে অপ্রত্যাশিত ছিল। এ ধরনের কোনো মুক্তিপণের দাবি আর আসেনি।

এদিকে, ৯ জুলাই রাজুর সন্ধান দাবিতে মানববন্ধন করেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) সাধারণ শিক্ষার্থীরা।


মন্তব্য

এ বিভাগের আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ