রাবিতে আরইউট্যাব’র ব্যতিক্রমধর্মী উদ্যোগ

সংগঠন
রাবি ট্যালেন্ট বল (আরইউট্যাব)  © লোগো

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) শিক্ষার্থীদের জীবন ও ক্যারিয়ার বিষয়ক ব্যতিক্রমধর্মী বিভিন্ন কার্যক্রম নিয়ে কাজ করছে রাবি ট্যালেন্ট বল (আরইউট্যাব)। করোনার প্রতিকূল পরিবেশেও শিক্ষার্থীদের মাঝে সৃজনশীল কার্যক্রমের মধ্য দিয়ে এগিয়ে চলেছে ক্যাম্পাসের নব প্রতিষ্ঠিত এই সংগঠন।

ইতোমধ্যে, শিক্ষার্থীদের ক্যারিয়ার ডেভেলপমেন্ট বিষয়ক বিভিন্ন কার্যক্রম পরিচালনা করেছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ট্যালেন্ট বল। এছাড়া সংগঠনের সুষ্ঠু কার্যক্রম গতিশীল রাখাতে বিভিন্ন উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। চলছে অনলাইন ক্যারিয়ার বিষয়ক বিভিন্ন সেশন ও ট্রেইনিং প্রোগ্রাম।

আরইউট্যাব-এর কার্যক্রম সম্পর্কে প্রতিষ্ঠাতা ইফতেখার আলম ধ্রুব জানান, শিক্ষার্থীদের জীবন ও ক্যারিয়ার ডেভেলপমেন্ট বিষয়ে কাজ করতে ক্যাম্পাসে এই সংগঠন আত্মপ্রকাশ। শিক্ষার্থীদের জীবনমূখী বিভিন্ন প্রশিক্ষণের মাধ্যমে তাদের দক্ষতা বৃদ্ধিতে এ সংগঠন কাজ করে চলেছে।

তিনি বলেন, খুব শিগগির আমরা শিক্ষার্থীদের জন্য ইন্টারভিউ কম্পিটিশনে নিজেদের দক্ষতা বৃদ্ধি বিষয়ক ইমোশনাল ইন্টেলিজেন্স ট্রেইনিং প্রোগ্রামের পাশাপাশি ৪ মাস ব্যাপী স্পোকেন ইংলিশ ট্রেইনিং প্রোগ্রাম ও ভিডিও এডিটিং কোর্স চালু হচ্ছে। যাতে করোনার অলস সময়টা শিক্ষার্থীরা কাজে লাগিয়ে নিজের দক্ষতা বৃদ্ধি করতে পারবে।

সংগঠনের প্রশিক্ষণ পদ্ধতি সম্পর্কে ধ্রুব জানান, আরইউট্যাব-এর প্রতিটি সেক্টরে রয়েছে প্রশিক্ষণ ব্যবস্থা। প্রশিক্ষণ থেকে প্রাপ্ত অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগানোর জন্য রয়েছে থাকে বিভিন্ন ধরনের ইন্ট্রা কম্পিটিশন। যেখানে সদস্যপদ অর্জনে সকলকে সাইকোলজি টেস্টের মধ্য দিয়ে উত্তীর্ণ হতে হয়। উত্তীর্ণ সদস্যরা আরইউট্যাব সদস্যপদ অর্জন করতে পারে।’

সংগঠনেন সদস্যরা মনে করেন, আরইউট্যাব এমন একটি সংগঠন, যেখানে একজন শিক্ষার্থীকে তার ক্যারিয়ার প্রস্তুত করতে সাহায্য করে এবং নিজের জড়তা কাটিয়ে সবার সামনে নিজেকে মেলে ধরতে শেখায়। সর্বোপরি শিক্ষার্থীদের জন্য স্বপ্ন পূরণে ব্যতিক্মধর্মী প্লাটফর্ম হলো আরইউট্যাব।

২০২০ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর স্কিল ডেভেলপমেন্ট, মেন্টাল হেলথ ডেভেলপমেন্ট, মিডিয়া এবং কালচারাল বিষয়ক এই চারটি সেক্টরে শিক্ষার্থীদের দক্ষতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে আত্মপ্রকাশ করে আরইউট্যাব। প্রতিষ্ঠার পর থেকেই শিক্ষার্থীদের জীবন ও ক্যারিয়ার বিষয়ক দক্ষতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে কাজ করে চলেছেন সংগঠনেন সদস্যরা।

ইতোমধ্যে গ্রাফিক ডিজাইন ট্রেইনিং প্রোগ্রাম, অভিনয় শিক্ষা কোর্স, লিডারশীপ ট্রেইনিং প্রোগ্রাম, মেন্টাল হেলথ সেশন, সাইকোলজি লাইভ শো, ইন্টারভিউ ট্রেইনিং প্রোগ্রাম, ই-মেইল ম্যানেজমেন্ট, পাওয়ার পয়েন্ট স্লাইডমেকিং ট্রেইনিং প্রোগ্রাম, প্রেজেন্টেশন ট্রেইনিং প্রোগ্রাম সফলভাবে সম্পন্ন করেন তারা। এ সপ্তাহে আয়োজিত হয় আইআরপিসি ২.০।

আরইউট্যাব একটি শিক্ষামূলক প্রতিষ্ঠান। যেখানে একাডেমিক শিক্ষা নয় বরং শিক্ষার্থীদের দক্ষতা বৃদ্ধিতে জীবন এবং ক্যারিয়ার বিষয়ক শিক্ষা দেয়া হয়।


মন্তব্য

এ বিভাগের আরো সংবাদ