সংকটে থাকা ঢাবি শিক্ষার্থীদের জন্য ‘মেধাবীর হাসি’ কর্মসূচী

ফোরাম
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী ফোরাম  © টিডিসি ফটো

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অনেক শিক্ষার্থী নিজে আয় করে লেখাপড়া করে, কেউবা আবার পরিবারের ঘানি টানেন৷ কিন্তু করোনার কারণে অনেকেই হারিয়েছেন আয়ের সামান্য সুযোগটুকু৷ এসব শিক্ষার্থীদের সাথে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করার উদ্যোগ নিয়েছে ‘ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী ফোরাম’৷

এ বিষয়ে ‘ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় নিরাপত্তা মঞ্চ’ ও ‘ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী ফোরাম’- এর প্রতিষ্ঠাতা জুলিয়াস সিজার তালুকদার বলেন, যে দুঃসময় আমাদের শিক্ষার্থী বন্ধুদের সামনে এসে হাজির হয়েছে তা মোকাবেলা করার আত্মবিশ্বাস হয়ে আমরা তাদের পাশে দাঁড়াতে চাই। আমরা আসলে সমস্যার সমাধান নই, সমাধান আমাদের কাছে নেই। সমাধানের প্রতিশ্রুতি দিয়ে কপটতা আমরা করব না। আমরা হতে চাই তাদের আত্মবিশ্বাস।

তিনি জানান, শুক্রবার (৭ মে) বিকালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় মানবিক বন্ধুসভার প্রতিষ্ঠাতা এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী ফোরাম-এর এডমিন সিদ্দিকী মহসীন পাটওয়ারী ভাইয়ের সাথে কথা বলছিলাম। তখন দ্বিতীয় বর্ষের একটি মেয়ে তার সংকটের কথা আমাকে জানায় এবং তাকে সাহায্য করার অনুরোধ জানায়৷ একথা শুনেই মহসীন ভাই বললেন তাকে একাধিক জন এভাবে বলেছেন৷ তখন মহসীন ভাই বললেন, ‘সিজার, চলো, আমরা আমাদের ভাই-বোনগুলোর জন্য কিছু করি। আমাদের সামর্থ্য সামান্য কিন্তু ফেসবুকে পোস্ট করলে আরো সাহায্য পাওয়া যাবে৷’

তিনি আরো জানান, যেমন কথা, তেমনই কাজ৷ দিলাম পোস্ট। ৭ মে পোস্ট করার ৪ ঘণ্টার মধ্যে প্রায় ৫০ হাজার টাকা আসে। পরদিন সকালে তা লাখ ছাড়িয়ে যায় এবং ৯ টা পর্যন্ত প্রায় ১ লাখ ৫৮ হাজার টাকা আসে। শনিবার (৮ মে) রাত ১০ টা পর্যন্ত সংকটাপন্ন ১ম ও ২য় বর্ষের শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে আবেদন ও আগ্রহী দাতাদের কাছ থেকে উপহার বাবদ অর্থ গ্রহণ করব। তারপর আবেদন মূল্যায়ন করে যথার্থ প্রার্থীদের মধ্যে প্রাপ্ত সব টাকা ভাগ করে দেয়া হবে।

এ বিষয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় মানবিক বন্ধুসভার প্রতিষ্ঠাতা সিদ্দিকী মহসীন পাটওয়ারী জানান, আমরা চাই, সব শিক্ষার্থী ঈদ উদযাপন করুক। আমরা গণ তহবিল করে তাদেরকে ঈদ উপহার পাঠাব। আজ রাত থেকেই তাদেরকে ঈদ উপহার হিসেবে টাকা পাঠানো হবে ইনশাআল্লাহ।


মন্তব্য

এ বিভাগের আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ