নিরাপদ ক্যাম্পাসের দাবিতে ঢাবি শিক্ষার্থীদের ৩ দফা

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়
শনিবার দ্বিতীয় দিনের মতো কর্মসূচি পালন করা হয় ক্যাম্পাসে  © সংগৃহীত

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) সাবেক শিক্ষক আজহার জাফর শাহর গাড়িচাপায় এক নারীর মৃত্যুকে কেন্দ্র করে শুক্রবার থেকে বিক্ষোভ, মশাল মিছিল ও উপাচার্যের বাসভবনের সামনে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থী এবং বিভিন্ন ছাত্রসংগঠন।

এদিকে, শনিবার বিকেলে নিরাপদ সড়ক ও ক্যাম্পাসসহ তিন দফা দাবি নিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান ও প্রক্টর অধ্যাপক ড. এ কে এম গোলাম রব্বানী বরাবর স্মারকলিপি দিয়েছেন শিক্ষার্থীরা।

স্মারকলিপিতে তিন দফার কথা উল্লেখ করা হয়েছে। দাবিগুলো হলো—১. ঢাবির রাস্তা যদি সিটি করপোরেশনের অধীনে থাকে তাহলে এটি ঢাবি কর্তৃপক্ষের আওতায় আনতে হবে। ২. অনতিবিলম্বে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে অনিয়ন্ত্রিত যানবাহনের নিয়ন্ত্রণ করতে হবে এবং অভ্যন্তরীণ যানবাহনের ক্ষেত্রে গতিসীমা নিয়ন্ত্রণ করতে হবে। ৩. ক্যাম্পাসের প্রত্যেকটি প্রবেশমুখে চেকপোস্ট বসাতে হবে।

স্মারকলিপি দেওয়ার বিষয়ে শামসুন্নাহার হল ছাত্র সংসদের সাবেক ভিপি শেখ তাসনীম ইমরোজ ইমি বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য স্যার, প্রক্টর স্যারের সঙ্গে নিরাপদ সড়ক ও ক্যাম্পাসের বিষয়ে আলোচনা করেছি, স্মারকলিপি দিয়েছি। ওনারা আমাদের দাবিগুলো শুনেছেন, ইতিবাচক মনে হয়েছে। আশা করি, দ্রুত সমাধান হবে।

শিক্ষার্থীদের স্মারকলিপি ও দাবিগুলোর বিষয়ে ঢাবির উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান বলেন, শিক্ষার্থীরা যে দাবিগুলো পেশ করেছে সেগুলো যৌক্তিক, তারা আমাদের নিয়মিত শিক্ষার্থীও বটে। আমি তাদের দাবি আমলে নিয়েছি, তাদের আশ্বস্ত করেছি। ঢাকা মহানগর দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের সঙ্গেও আলাপ করেছি।

স্মারকলিপি দেওয়ার সময় আরও উপস্থিত ছিলেন— কবি সুফিয়া কামাল হল সংসদের সাবেক জিএস মনিরা শারমিন, ছাত্র ফেডারেশনের ঢাবি শাখার আহ্বায়ক আরমানুল হক, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী আরিফুল ইসলাম, দ্যুতি অরণ্য চৌধুরী, আবদুল্লাহ আল নোমান, গোলাম আযম, মোহাম্মদ রামিম খান, আহামেদউল্যাহ সিয়াম, জালাল আহমেদ, ফারিহা ইসলাম তিফলা প্রমুখ।


সর্বশেষ সংবাদ