চবিতে সাংবাদিক মারধরের ঘটনায় তদন্ত কমিটি

চবিতে সাংবাদিক মারধরের ঘটনায় তদন্ত কমিটি
অভিযুক্ত দুই ছাত্রলীগ কর্মী  © সংগৃহীত

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের আরবি বিভাগের শিক্ষার্থী রেদওয়ান আহমদকে মারধরের ঘটনায় তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

বুধবার (২৮ সেপ্টেম্বর) বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার অধ্যাপক এস এম মনিরুল হাসান।

মনিরুল হাসান জানান, বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক ড. ইকবাল আহমেদকে আহ্বায়ক করে কমিটি গঠন করা হয়েছে। সদস্য হিসেবে আছেন সহকারী প্রক্টর অরূপ বড়ুয়া ও সদস্য সচিব হিসেবে রাখা হয়েছে সহকারী প্রক্টর মুহাম্মদ ইয়াকুব।

এ প্রসঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন জারিতকৃত এক বিজ্ঞপ্তিতে তিন সদস্যের কমিটিকে এ ঘটনায় দায়ী ব্যক্তিদের চিহ্নিতকরণসহ বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের নিকট বিস্তারিত প্রতিবেদন প্রদানের জন্য বলা হয়।

আরও পড়ুন: ইডেন ছাত্রলীগ সভাপতি-সম্পাদকের বিরুদ্ধে মামলার আবেদন।

অধ্যাপক মনিরুল হাসান বলেন, দ্রুত সময়ের মধ্যে কমিটিকে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে। প্রতিবেদনের ভিত্তিতে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এর আগে ছাত্রলীগ কর্মীর জন্মদিন পালন করতে না যাওয়ায় বিশ্ববিদ্যালয়ে আরবি বিভাগের শিক্ষার্থী রেদওয়ান আহমদকে মারধর করেছে ছাত্রলীগের অনুসারীরা। এ সময় তারা ‘ছাত্রলীগ না করলে হলে থাকা যাবে না’ বলে  হুমকি দিয়েছে তাকে।

‘ভুক্তভোগী’  বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র অনলাইন নিউজ পোর্টাল ও একটি সংবাদমাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি হিসেবে কর্মরত।

তার দাবি, বিজয় গ্রুপের এক কর্মীর জন্মদিনের অনুষ্ঠানে না যাওয়ায় তাকে রুমে গিয়ে মারধর করেছেন অভিযুক্তরা। এ ঘটনায় পরে প্রক্টর বরাবর লিখিত অভিযোগ দিন তিনি। এই অভিযোগের প্রেক্ষিতে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়।

যাদের বিরুদ্ধে মারধরের অভিযোগ, লোকপ্রশাসন বিভাগের ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের আরশিল আজিম নিলয়, নৃবিজ্ঞান বিভাগের ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের শোয়েব আতিক। তারা দুজনই শাখা ছাত্রলীগের উপগ্রুপ বিজয়ের কর্মী হিসেবে ক্যাম্পাসে পরিচিত।


x

সর্বশেষ সংবাদ