টিকার আবেদন করেছেন ৩৭ বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০ হাজার শিক্ষার্থী

করোনা টিকা
লোগো  © ফাইল ফটো

দেশের ৩৭টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রায় ২০ হাজার শিক্ষার্থী করোনাভাইরাসের টিকার জন্য আবেদন করেছেন। জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) না থাকা এসব শিক্ষার্থী জন্মনিবন্ধন সনদের মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন (ইউজিসি) প্রদত্ত ওয়েবলিংকের মাধ্যমে টিকার আবেদন করেছেন।

ইউজিসি সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় এবং বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় এখনো শিক্ষার্থীদের তথ্য পাঠায়নি। আর জাতীয় বিশ্ববিদ্যাল, ইসলামী আরবি বিশ্ববিদ্যালয় এবং বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় নিজেরাই তাদের তথ্য স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে পাঠাবে। বুধবার (২৯ সেপ্টেম্বর) পর্যন্ত পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০ হাজার শিক্ষার্থীর তথ্য পেয়েছে তারা। 

বুধবার রাতে বিষয়টি দ্যা ডেইলি ক্যাম্পাসকে নিশ্চিত করেছেন ইউজিসি সদস্য (পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়) প্রফেসর ড. দিল আফরোজা বেগম।

তিনি বলেন, এখন পর্যন্ত আমরা ৩৭টি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের তথ্য পেয়েছি। প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী টিকার জন্য আবেদনকৃত শিক্ষার্থীর সংখ্যা প্রায় ২০ হাজার। আমরা কিছু আবেদন বাতিল করেছি। কেননা সেগুলোতে জন্মনিবন্ধনের নম্বর দেওয়া নেই।

প্রফেসর ড. দিল আফরোজা বেগম আরও বলেন, দুটি বিশ্ববিদ্যালয় এখনো আমাদের তথ্য পাঠায়নি। ওই দুটি ছাড়া বাকিদের তথ্য আমরা স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সংশ্লিষ্ট শাখায় পাঠিয়ে দিয়েছি।

প্রসঙ্গত, গত ১৬ সেপ্টেম্বর যে সকল শিক্ষার্থীর এনআইডি নেই তাদের নিবন্ধনের জন্য আলাদা ওয়েবলিংক চালু করে ইউজিসি। সেদিন এক বিজ্ঞপ্তিতে ইউজিসি জানায়, যেসব শিক্ষার্থীর জাতীয় পরিচয়পত্র নেই তারা জন্ম নিবন্ধন সনদের মাধ্যমে এই লিংক (https://univac.ugc.gov.bd) ব্যবহার করে করোনা টিকার জন্য নিবন্ধন করতে পারবেন। ২৭ সেপ্টেম্বরের মধ্যে শিক্ষার্থীদের নিবন্ধন করতে বলা হয়েছিল।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ

x