লাউয়ে আছে যত উপকার

টিপস ও টিউটোরিয়াল
বাংলাদেশে সারা বছর লাউ পাওয়া যায়।  © সংগৃহীত

লাউ আমাদের দেশের অত্যন্ত জনপ্রিয় একটি সবজির নাম। অনেকের কাছে লাউ তরকারি হিসাবে খুব প্রিয় একটা খাবার। তাইতো লাউয়ের জন্য বাংলাদেশের লোকশিল্পীরা গেয়ে গেছেন, “সাধের লাউ বানাইলো মোরে বৈরাগী”।

সে যাই হোক, আমরা জানি ঋতু পরিবর্তণের সময় মানুষের শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে। এ সময় শরীর সুস্থ রাখতে লাউ খাওয়া যেতে পারে। কেননা একটা লাউয়ের মধ্যে প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন সি, বি এবং ডি বিদ্যমান থাকে।

এছাড়াও লাউয়ে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ক্যালসিয়াম, ফসফরাস, ম্যাগনেসিয়াম, আয়রন এবং পটাশিয়াম। এসব পুষ্টি গুণাগুণ শরীরকে সুস্থ রাখতে সহায়তা করে। লাউ প্রধানত শীতকালীন সবজি হলেও বছরের অধিকাংশ সময় সারা দেশে এটি সহজে কিনতে পাওয়া যায়। সহজলভ্য এই লাউয়ের যত উপকারিতা আছে চলুন তাহলে জেনে নেই:

লাউয়ের যত উপকারিতা: 

* মানবদেহের তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণের জন্য লাউ খুবই সহায়ক একটি সবজি। কেননা গরমে ত্বক হয়ে ওঠে রুক্ষ ও খসখসে। তাই গরমের সময় নিয়মিত লাউ খেলে ত্বকের আর্দ্রতা ঠিক থাকে।

* এই গরমে মানুষের শরীর থেকে প্রচুর পানি বেরিয়ে যায়। এ কারণে দেহে তৈরী হয় পানিশূন্যতা। কিন্তু লাউয়ে প্রচুর পরিমাণে পানি থাকায় মানবদেহের পানির পরিমাণে ভারসাম্য রাখতে এটি সাহায্য করে।

আরও পড়ুন: কিডনি রোগ আছে কি-না বুঝার উপায়

* ডায়রিয়াজনিত পানিশূন্যতা রোধেও লাউ খুব উপকারি। এই লাউ কিডনির কর্মক্ষমতা বৃদ্ধিতে সাহায্য করে।

* প্রস্রাবের সংক্রমণ রোধেও লাউ কার্যকর ভূমিকা পালন করে।

* লাউ খেলে মানসিক সমাস্যা কাটে। কেননা লাউয়ের মধ্যে কোলন নামের এক ধরনের নিউরো উপাদান থাকে যা মানসিক সমাস্যা দূর করতে সাহায্য করে। লাউ মানুষের বিভিন্ন মানসিক রোগে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনাও কমিয়ে দেয়।

* লাউয়ের রস ওজন কমাতে সাহায্য করে। নিয়মিত খেলে শরীরে ফাইবারের মাত্রা বেড়ে যায়। ফলে ঘনঘন তৃষ্ণা পায় না আর।

* দীর্ঘদিন ধরে পেটের পীড়া কিংবা কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা থাকলে লাউ খেলে খুবই উপকার আসবে।

* বিশেষ করে রমজানে আমাদের পানি কম খাওয়া হয়। ফলে শরীরে ডি-হাইড্রেশন তৈরী হয়। লাউয়ের রস বা তরকারি শরীরের পানির অভাব পূরণ করে।

আরও পড়ুন: এই গরমেও আরামে থাকার উপায়

* রক্তচাপজনিত সমাস্যায় যারা ভুগছেন তাদের জন্য লাউ খাওয়া আবশ্যক। কেননা লাউ শরীরের তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রনে সহায়তা করে।

* আমাদের অবসাদ কিংবা দুশ্চিন্তায় রাতে ভাল করে ঘুম হয় না। কিন্তু লাউয়ের রস বা তরকারি ভাল ঘুম দিতে সাহায্য করবে।

* লাউয়ের রস নিয়মিত খেলে, প্রাণহীন, রুক্ষ ত্বকের সমস্যা কমবে। এতে কিছুদিনের মধ্যেই ত্বক ঝকঝকে, উজ্জ্বল দেখাবে। এমনকি ব্রণ, ব্রেকআউটসের মতো সমস্যাও দূর হবে।

যারা ঠাণ্ডার রোগী কিংবা যাদের ডায়াবেটিস আছে তারা অবশ্য লাউ খাওয়ার ক্ষেত্রে কিছু বিষয় খেয়াল রাখবেন:

> যারা ডায়াবেটিস রোগে আক্রান্ত তারা ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া লাউয়ের রস খাবেন না।

> লাউ খেলে কারো কারো শরীরে অ্যালার্জির সমস্যাও দেখা দিতে পারে। 

> যাদের ঠাণ্ডা রোগ আছে তারা লাউ খেলে আরও অসুস্থ্য হয়ে যেতে পারেন।

> লাউয়ের রস বেশি তেতো হলে শরীরে বিষক্রিয়া হতে পারে। এতে ডায়রিয়া, এমনকি বমিও হতে পারে।


x

সর্বশেষ সংবাদ