চবিতে সেরাদের সেরা হওয়ার উপায়

ভর্তি পরীক্ষা
রাকিবুল হাসান রাকিব, বাংলা বিভাগ, চবি  © টিডিসি ফটো

উচ্চমাধ্যমিকের পর সকল ছাত্র-ছাত্রীর জন্য একটি স্বপ্নের নাম বিশ্ববিদ্যালয়। সে স্বপ্নকে বাস্তবায়ন করার জন্য নিজের সবটুকু উজাড় করে ভর্তি পরীক্ষায় টিকে থাকার লড়াইয়ে অবতীর্ণ হয় শিক্ষার্থীরা। আর সে লড়াই হলো বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষার প্রস্তুতি। কৌশলী হয়ে প্রস্তুতি নিলে হওয়া যাবে সেরাদের সেরাও। 

আজ আমরা কথা বলবো চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি প্রস্তুতি নিয়ে- তোমরা হয়তো জেনে থাকবে, প্রতিটি বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব প্রশ্নপদ্ধতি অনুসরণ করে ভর্তি পরীক্ষা নিয়ে থাকে। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষায় যে প্রশ্নপদ্ধতি অনুসরণ করা হয় এবং এতে উত্তীর্ণ হতে সাধারণত শিক্ষার্থীদের যেসকল বিষয় অনুসরণ করা উচিৎ সেগুলোই আজকে তুলে ধরার চেষ্টা করবো।

ক ইউনিট: বাংলা ১০ (বাধ্যতামূলক) ইংরেজি ১৫ (বাধ্যতামূলক), গণিত, পদার্থ, রসায়ন, জীববিজ্ঞান, এই চারটির যেকোনো তিনটির উত্তর দিতে হবে। এক্ষেত্রে তিনটিতে ২৫ নম্বর করে ৭৫ মার্কস। এক্ষেত্রে উত্তীর্ণ হতে বাংলায় ৩, ইংরেজিতে ৪ ও বাকী তিনটিতে ১০ মার্কস করে পেতে হবে। ক ইউনিটের ক্ষেত্রে গুরত্বপূর্ণ কিছু কথা—

১. গণিত, রসায়ন, জীববিজ্ঞান- এই তিনটির উত্তর দিলে পদার্থবিজ্ঞান ছাড়া বাকি সকল সাবজেক্টে ভর্তি হওয়া যাবে।

২. গণিত ছাড়া বাকি তিনটি সাবজেক্ট রসায়ন, পদার্থ, জীববিজ্ঞান উত্তর দিলে গণিত ও পরিসংখ্যান ছাড়া সকল সাবজেক্টে ভর্তি হওয়া যাবে।

৩. রসায়ন ও জীববিজ্ঞান এর যেকোন একটি উত্তর না দিলে অনেক সাবজেক্টই পড়ার জন্য বিবেচিত হবে না। এক্ষেত্রে ভর্তি হওয়ার সুযোগও খুব কম থাকবে।

৪. তাই উত্তর দেওয়ার বেস্ট সিকোয়েন্স হতে পারে, জীববিজ্ঞান, রসায়ন, (গণিত অথবা পদার্থ), ইংরেজি, বাংলা।

ক ইউনিটের জন্য বিগত সনের প্রশ্ন ব্যাংক হালদা, পানকৌড়ি অনুসরণ করা যেতে পারে। এছাড়া বিষয়ভিত্তিক মূল বই, বাংলা বিচিত্রা এবং English for competitive exam পড়তে হবে।

খ ইউনিট: বাংলা-৩৫, ইংরেজি-৩৫, সাধারণ জ্ঞান-৩০ মার্কস। সর্বমোট ৪০ পেলে পাশ। তবে যারা চারুকলা, নাট্যকলা ও সংগীত বিভাগে ভর্তি হতে ইচ্ছুক, তারা ২০ মার্কের অতিরিক্ত ব্যবহারিক পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে হবে।

গ ইউনিট: ইংরেজি-৩০, হিসাব বিজ্ঞান-৩৫, ব্যবসায় নীতি ও প্রয়োগ-৩৫। এক্ষেত্রে ইংরেজিতে ৮, হিসাব বিজ্ঞানে ১২ এবং ব্যবসায় নীতি ও প্রয়োগে ১২ পেয়ে পাশ করতে হবে। সর্বমোট ৪০ পেলে পাশ।

গ ইউনিটের জন্য বিষয়ভিত্তিক মূল বই, English for competitive Exam, Toefl এবং বিগত সনের প্রশ্ন ব্যাংক পানকৌড়ি, হালদা, ইনডেক্স অনুসরণ করা যেতে পারে। ঘ ইউনিট: বাংলা-৩০, ইংরেজি-৩০,বিশ্লেষণ দক্ষতা-২০, (সাধারণ জ্ঞান/ গণিত/অর্থনীতি)-২০। এক্ষেত্রে যেকোনো ১টির উত্তর দিতে হবে। এছাড়া স্পোর্টস সায়েন্সে যারা যেতে চায় তাদের ফিল্ড টেষ্ট ২০ মার্কস ও সার্টিফিকেট ১০ মার্কস থাকবে। প্রতিটি ভুল উওরের জন্য মোট প্রাপ্ত নম্বর থেকে ০.২৫ কাটা হবে। সঠিক উত্তরের জন্য ১ নম্বর দেওয়া হবে।

চবির খ ও ঘ ইউনিটের জন্য বাংলা- নবম দশম শ্রেণীর বাংলা ব্যাকরণ, উচ্চমাধ্যমিকের বাংলা ১ম পত্র, সৌমিত্র শেখর এর বাংলা ব্যাকরণ অনুসরণ করতে হবে। ইংরেজির জন্য Cliffs+Barrons Toefl এবং English for competitive exam.

সাধারণ জ্ঞানের জন্য Mp3 এবং সাম্প্রতিক সাধারণ জ্ঞানের জন্য কারেন্ট এ্যাফেয়ার্স অনুসরণ করা যেতে পারে। বিশ্লেষণ দক্ষতার জন্য হালদা IQ এবং বিগত সালের প্রশ্ন ব্যাংক। এক্ষেত্রে পানকৌড়ি বা ইনডেক্স ব্যাংক বি+ডি অনুসরণ করা যেতে পারে। উপরের তথ্যগুলো থেকে চবির ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্ন পদ্ধতি এবং কোন ইউনিটে কি কি বই অনুসরণ করা যেতে পারে আশাকরি এরকম একটা ধারণা হয়েছে।

বি.দ্র: চ.বি ভর্তি পরীক্ষায় ভালো করতে হলে বিগত সালের প্রশ্ন সমাধানে বেশী জোর দিতে হবে।

লেখক: শিক্ষার্থী, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ