রাবির ‘সি’ ইউনিট প্রস্তুতি

পরীক্ষা দেওয়ার আগে যে বিষয়গুলো জানা জরুরি

ভর্তি পরীক্ষা
রাবি ভর্তি পরীক্ষার  © টিডিসি ফটো

প্রতিটি শিক্ষার্থীর স্বপ্ন থাকে দেশের স্বায়ত্ত্বশাসিত কিংবা পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করার। আর সেটা যদি হয় স্বায়ত্ত্বশাসিত বিশ্ববিদ্যালয় তাহলে তো কোনো কথাই নাই। দেশে চাারটি স্বায়ত্ত্বশাসিত বিশ্ববিদ্যালয় রয়েছে। এগুলোর মধ্যে অন্যতম রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি)। এই বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতক ভর্তি পরীক্ষা আগামী ৪ অক্টোবর থেকে শুরু হচ্ছে।

প্রতি বছরের ন্যায়, এই বছরও রাবিতে ৩টি ইউনিটে ভর্তি পরীক্ষা হবে। যার এ ইউনিট মানবিক/বিভাগ পরিবর্তন শিক্ষার্থীদের জন্য, বি ইউনিট ব্যবসায় শিক্ষার্থীদের জন্য এবং সি ইউনিট সাইন্সের শিক্ষার্থীদের জন্য। 

এবার প্রতি ইউনিটে চুড়ান্ত পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ৪৫ হাজার। তবে সবচেয়ে বড় কথা এই বছর ভর্তি পরীক্ষায় নেগেটিভ মার্কস থাকবে। প্রতি ৫টি ভুল উত্তরের জন্য ১ মার্কস কাটা যাবে।

সি ইউনিট
পরীক্ষা হবে ১০০ নম্বরে, মোট প্রশ্ন থাকবে ৮০টি আর সময় ৬০ মিনিট। পরীক্ষা হবে ৩টি শিফটে অর্থাৎ প্রতি শিফটে পরিক্ষার্থীর সংখ্যা ১৫ হাজার। মনে রাখবে, প্রতি শিফটের প্রশ্ন আলাদা আলাদা হবে এবং শিফট ভিত্তিক সিট সংখ্যাও আলাদা আলাদা থাকবে। তাই কোন শিফটে কেমন প্রশ্ন হলো, কঠিন/সহজ হলো, এসব চিন্তা করতে হবে না। কারণ তোমার প্রতিযোগী তোমার শিফটের ১৫ হাজার শিক্ষার্থীরাই শুধু।

আসন সংখ্যা
এই ইউনিটে মোট সিট প্রায় ১ হাজার ৬০০টি। কিন্তু এই সিট সংখ্যা হ্রাস পাবে, পরীক্ষায় শিক্ষার্থীদের ঐচ্ছিক বিষয় দাগানোর উপর।

আবশ্যিক বিষয়
১. পদার্থ (২৫*১.২৫=৩১.২৫)
২. রসায়ন (২৫*১.২৫=৩১.২৫)
৩. আইসিটি (৫*১.২৫=৬.২৫)
এই বিষয়গুলো সকল শিক্ষার্থীদের দাগাতে হবেই।

ঐচ্ছিক বিষয়
এখানে রাস্তা থাকবে ৩টি, শিক্ষার্থীরা ৩টি রাস্তার যেকোনো একটি বাছাই করে নিবে। আর এই রাস্তাই বাছাই করবে তার জন্য কত সিট থাকবে।
১. জীববিদ্যা (২৫*১.২৫=৩১.২৫)
২. গণিত (২৫*১.২৫=৩১.২৫)
৩. জীববিদ্যা (১৩)+ গণিত(১২) (২৫*১.২৫=৩১.২৫)

এবার আসি আসন নিয়ে, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের জীববিজ্ঞান বিষয়ে টোটাল সিট প্রায় ৫৫০টি। তাই যারা ঐচ্ছিক বিষয় হিসাবে জীববিদ্যা দাগাবে, তাদের সি ইউনিটের ১ হাজার ৬০০টি সিটের মধ্যে ৫৫০টি সিট থাকবে। মানে তারা বাকি ১ হাজার ৫০টি সিট হারাবে।

আবার গণিত বিষয়ে টোটাল সিট প্রায় ১ হাজার ৫০টি। তাই যারা ঐচ্ছিক হিসাবে গণিত দাগাবে তাদের সি ইউনিটের ১ হাজার ৬০০ টি সিটের মধ্যে ১ হাজার ৫০ সিট থাকবে। মানে ৫৫০টি সিট হারাবে।

আর যারা ঐচ্ছিক বিষয় হিসাবে জীববিদ্যা+গণিত দাগাবে তারা সি ইউনিটের সকল সিটের জন্য সিলেক্ট হবে।

শিফট অনুযায়ী সিট
আমরা আগের দেখলাম যে, যারা জীববিদ্যা দাগাবে, তাদের জন্য বরাদ্দকৃত সিট ৫৫০টি। কিন্তু পরীক্ষা হবে ৩টি শিফটে, তাই প্রতি শিফট ভিত্তিক সিট মাত্র ১৮২টি মাত্র। তাই যারা জীববিদ্যা দাগাবে, আমার ধারণা অনুযায়ী প্রথম ৪০০ জনের থাকলে, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাব্জেক্ট পাবে। তাই ৪০০ জনের মধ্যে থাকার চেষ্টা করবে।

যারা গণিত দাগাবে, তাদের একই ভাবে শিফটভিত্তিক সিট ৩৫০টি মাত্র। যারা গণিত দাগাবে, তাদের প্রথম ৫০০ জনের মধ্যে থাকলে, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাব্জেক্ট পাবে।

যারা জীববিদ্যা+গণিত উভয়ই দাগাবে, তাদের শিফট প্রতি আসন সংখ্যা প্রায় ৫৩০টি। এদের প্রথম ৮০০ জনের মধ্যে থাকলে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাব্জেক্ট পাবে।

তবে আমার সাজেশন হলো, এখন যারা আসন সংখ্যা কম দেখে ভয় পাচ্ছো এবং সিদ্ধান্ত নিচ্ছো যে তুমি উভয়ই দাগাবা, কিন্তু তোমার প্রস্তুতি ছিলো শুধু জীববিজ্ঞান। সেই ক্ষেত্রে তুমি যদি আজ সিদ্ধান্ত নাও, জীববিজ্ঞান+গণিত দাগাবে, তাহলে ভূল পথে চলা শুরু করলে, তুমি টার্গেট নিয়ে পড়তে থাকো,সিট কম হলেও, তোমার চান্স হয়ে যাবে।

যারা প্রশ্নের প্যাটার্ন সম্পর্কে ধারণা নিতে চাও, তারা আমাদের ক্যাম্পাসে এসে ত্রিপলির মোস্তাফিজ ভাইয়ের শিট কিনে নিবে, ক্যাম্পাসে বিভিন্ন বই বিক্রেতার কাছে পাওয়া যাবে। সম্পূর্ণ ধারণা পেয়ে যাবে ইনশাআল্লাহ।

লেখক: ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিকস ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ (ত্রিপলি), রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়


মন্তব্য

x

সর্বশেষ সংবাদ