ঢাবি ভর্তি পরীক্ষা: ইংরেজির জন্য যা পড়বেন, যা বাদ দেবেন

ভর্তি পরীক্ষা
পরীক্ষার হলে কোন প্রশ্ন নিয়ে দ্বিধা-দ্বন্দ্ব তৈরি হলে সেটি রেখে পরবর্তী প্রশ্নে যেতে হবে। আগে চান্স নিশ্চিত করতে হবে,  এরপর ভাল বিষয় পাওয়ার জন্য চিন্তা করতে হবে।   © টিডিসি ফটো

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির সুযোগ পাওয়ার জন্য সব বিষয়ে জানতে হবে— এমন ধারণা সঠিক নয়। বরং ভর্তি পরীক্ষার জন্য ভর্তিচ্ছুদের জানা উচিত এমন বিষয়ে সুস্পষ্ট জ্ঞান থাকতে হবে, পরিষ্কার ধারণা রাখতে হবে। এজন্য শেষ মুহূর্তে সারাদিন অপরিকল্পিতভাবে না পড়ে পরিকল্পিতভাবে পড়া উচিত।

স্বপ্নের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা অনুষদ (খ-ইউনিটে), ব্যবসায় অনুষদ (গ-ইউনিটের) এবং সমাজবিজ্ঞান অনুষদে (ঘ-ইউনিটে) ভর্তির সুযোগের জন্য ইংরেজির প্রস্তুতি অনেক গুরুত্বপূর্ণ। ‘ক’ ইউনিটে যারা ইংরেজির উত্তর দেবেন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, তাদের জন্য এবং চান্স পাওয়ার পর পছন্দের বিষয় পাওয়ার জন্যেও ইংরেজিতে ভাল করা জরুরি।

আর যারা ‘গ’ এবং ‘ঘ’ ইউনিটের পরীক্ষার্থী, তাদের হাতে বেশ কয়েকদিন সময় আছে। পড়া মনে রাখার জন্য ফ্রেশ মুডে পড়তে বসা যেতে পারে। আর পড়ার মাঝে ক্লান্তি দূর করার জন্য ‘লাল চা’ বেশ ফলপ্রসূ। ঘুম নামক অলসতা ঘিরে ধরলে কিংবা মোবাইল গেমসে আসক্তি থাকলে বন্ধুদের নিয়ে গ্রুপ স্টাডি করা যেতে পারে— যা খুবই জরুরী।

মূল ফোকাস: শুধু ঢাবি নয়, গুচ্ছসহ প্রায় সব বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা, ব্যবসায় এবং সমাজবিজ্ঞান অনুষদে ভর্তি পরীক্ষার প্রস্তুতিতেই ইংরেজি প্রথম পত্র বইটি শুধু গুরুত্বপূর্ণই নয়, বরং অপরিহার্য ও বটে। তবে ভর্তি পরীক্ষার ৩-৪ দিন আগ থেকে নতুন কোন পড়া মুখস্ত না করে আগের পড়া বিষয়গুলো ভালোভাবে অধ্যয়ন করে সেগুলোকে আয়ত্ত্বে আনতে হবে।

ইংরেজি প্রথম পত্রের প্রস্তুতির জন্য যে বিষয়গুলোতে বেশি গুরুত্ব দিতে হবে: প্রথমত, একাদশ-দ্বাদশ শ্রেণির ইংরেজি ১ম পত্রের বইটির অনুচ্ছেদগুলো এবং অনুশীলনী বারবার শেষ করতে হবে। আর অনুচ্ছেদ থেকে মূল বক্তব্য বের করে আনার প্রচেষ্টা করত হবে।

ছোট কিংবা বড় কোন অনুচ্ছেদই বাদ দেওয়া যাবে না। আর প্রতিটি অনুচ্ছেদ বুঝতে গেলে অবশ্যই বইটির অপরিচিত শব্দভান্ডারের সাথে পরিচিতি বাড়াতে হবে, নতুন কোন অপরিচিত শব্দ থাকলে দুই একটা প্রতিশব্দসহ তার অর্থ জেনে নেওয়া যেতে পারে।

তবে একাদশ-দ্বাদশ শ্রেণীর মূল বইয়ের বাইরের শব্দার্থ নতুন করে মূখস্ত করে সময় নষ্ট করার দরকার নেই। এমনটিও হতে পারে যে, তোমার মুখস্ত করা দুই হাজার Vocabulary থেকে একটাও কমন পড়বে না। তাই ইংরেজি প্রথম পত্র বইটিকেই বেশি গুরুত্ব দাও। তবে, যাদের প্রস্তুতি খুবই ভাল, তারা নিজেদের ভোকাবুলারি সমৃদ্ধ করতে পারেন। এছাড় বানান শুদ্ধতাও (Correct Spelling) খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়।

আরও পড়ুনশেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি হবে গোছানো ও পরিকল্পিত

এছাড়া, ইংরেজি গুরুত্বপূর্ণ প্রবাদগুলো, Figure of speech, মূল বইয়ের কবিতাগুলো এবং ‘Epic Poet’ খ্যাত মিল্টন, ফিলিস্তিনের জাতীয় কবি দারবিশ, শেক্সপিয়রসহ সাহিত্যিক-কবিদের সম্পর্কে জানা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এমনটিও হতে পারে যে, বাংলা সাহিত্যের কবিদের সম্পর্কে, মুক্তিযুদ্ধ ও বঙ্গবন্ধু, ই-কমার্স, পদ্মাসেতু এবং মেট্রোরেল সম্পর্কে ইংরেজিতে লিখতে বলতে পারে এবং এটি খুবই প্রাসঙ্গিক। আমাদের সময় মাশরাফি বিন মর্তুজাকে নিয়ে একটা অনুচ্ছেদ এসেছিল ঢাবি ‘খ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায়।

ইংরেজি ২য় পত্রের প্রস্তুতির জন্য যে বিষয়গুলো বেশি গুরুত্ব দিতে হবে:

*Appropriate Preopositions
* Idioms and Phrases

* Parts of speech and their classifications, Voice, Narration, Comparison of Adjective, Double Comparison, Illogical Comparison, Subject-verb Agreement, Right forms of verbs, Conditionals, Causative Verbs, Subjunctive, Dangling Modifier, Tag Question, Parallel Structure, Redundancy, Embedded Questions.

* আজকে Figure of speech নিয়ে সংক্ষেপে আলোচনা করছি। সহজ ভাষায়, কথায় সাহিত্যিক মান বৃদ্ধির জন্য নানা শব্দ/ শব্দ সমষ্টি ব্যবহার করা হলে ইংরেজিতে তাকে Figure of speech বলে।

Simile: ‍as, like, than ব্যবহার করে ইংরেজিতে দুু’টি অসম জিনিসের তুলনা করতে Simile এর ব্যবহার।

Youth is like summer brave.
I wandered lonely as a  cloud.

Metaphor: as, like, than ব্যবহার না করে সরাসরি ইংরেজিতে দুু’টি অসম জিনিসের তুলনা করতে Simile এর ব্যবহার।

My life is a local bus.
Mouth of hell.

Euphemism: কোন কর্কষ এবং রুঢ় ভাষাকে তুলনামূলক নরমভাবে বলাকে Euphemism বলে।

১. He died yesterday( সে গতকাল মারা গেছে) না বলে আমরা বলতে পারি ‘He passed away yesterday’ অর্থাৎ তিনি গতকাল আমাদের ছেড়ে চলে গেছেন।
২. আপনাকে কেউ অফিসে এসে কিংবা ইনবক্সে বিরক্ত করছে— এ মুহূর্তে আপনি যদি তাকে বলেন ‘Get Out’ (বের হয়ে যাও/যান), তাহলে এটি শুনতে ভালে লাগবে না এবং লোকটি কষ্ট পাবে। এক্ষেত্রে আপনি বলতে পারেন, ‘Leave me alone’ অর্থাৎ ‘আমাকে একা থাকতে দিন।’

৩. ধরুন, আপনাকে  একজন এসে Stupid বললো, আপনার কাছে Stupid শব্দটি এতটাই অপছন্দনীয় হয়েছে যে, আপনি তাকে সুন্দর ভাষায় বলে দিলেন,  ‘I wasn't born yesterday’  অর্থাৎ, ‘আমি Stupid নই’।

Personification: কোন জড় বস্তুকে মানবরূপে কল্পনা করাই হল Personfication
Mr. Pneumonia is not a quiet man.
Mr. Iphone's camera is ‍so natural.

Paradox: Paradox এমন বাক্যকে বলে, যা প্রথম দেখায় অযৌক্তিক মনে হলেও গভীরভাবে চিন্তা করলে খুবই অর্থপূর্ণ মনে হবে।
A Hero dies to live (কেননা, বীরেরা মরে গিয়েই অমর হয়)
Money cannot buy happiness (টাকা দিয়ে সাময়িক সুখ পাওয়া গেলেও সত্যিকারের সুখ আসলে টাকা দিয়ে কেনা সম্ভব নয়)

সবশেষে পরামর্শ- পরীক্ষার হলে কোন প্রশ্ন নিয়ে দ্বিধা-দ্বন্দ্ব তৈরি হলে সেটি রেখে পরবর্তী প্রশ্নে যেতে হবে। আগে চান্স নিশ্চিত করতে হবে,  এরপর ভাল বিষয় পাওয়ার জন্য চিন্তা করতে হবে। 

লেখক: শিক্ষার্থী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও সংবাদকর্মী


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ