যে ছয় কারণে গরম পানি পান করা উচিত

যে ছয় কারণে গরম পানি পান করা উচিত
গরম পানি  © সংগৃহীত

প্রতিদিনের সুস্থতা নিশ্চিত করতে একজন মানুষের নিয়মিত আড়াই লিটার পানি পান করা উচিত। প্রচন্ড গরমে শরীরে পানির চাহিদা আরও বেড়ে যায়। এসময় মানুষ ঠাণ্ডা পানি বা পানীয় খাওয়ার প্রতি আগ্রহ দেখায় বেশি। তবে ঠাণ্ডা পানি মনের চাহিদা মেটালেও কমিয়ে দেয় শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা।

তাই মানুষের উচিত ঠাণ্ডা পানি পান করা যথাসম্ভব এড়িয়ে চলা। আমাদের উচিত গরম পানি পান করা। কারণ গরম পানি কেবল শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাই বাড়ায়ই না আরও অনেক উপকার করে। তবে গরম পানি পান করার কথা বলা হলেও অতিরিক্ত গরম পানি পান করা যাবে। সহনীয় পর্যােয়ের গরম পানি পান করতে হবে। 

চলুন জেনে নেওয়া যাক যে ছয় কারণে আপনি গরম পানি পান করবেন-

কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে

রিসার্চ গেটে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, কোষ্ঠকাঠিন্য কমাতে গরম পানি অনেক কার্যকরী। যাদের কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা আছে তারা নিয়মিত গরম পানি পান করুন। এতে করে অন্ত্রের স্বাস্থ্য ঠিক রাখা সহজ হয়। যারা নিয়মিত গরম পানি পান করেন তাদের কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা অনেকটাই কমে যায়।

আরও পড়ুন: বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের জন্য মাসে ১২ হাজার টাকার বৃত্তি, কাজ গবেষণা।

হজমে সাহায্য করে

যারা হজমের সমস্যায় ভুগছেন , তাদের জন্য উপকারী একটি উপায় হতে পারে গরম পানি পান করা। এটি পেটের ভেতর উৎসেচক বের করতে সাহায্য। যে কারণে খাবার বেশ দ্রুত হজম হয়। বিভিন্ন গবেষণায়ও উঠে এসেছে, গরম পানি পান করলে হজমশক্তি ভালো থাকে। 

রক্ত চলাচল ঠিক রাখে

এমন অনেকে আছেন যাদের শরীরে রক্ত চলাচল ঠিকমতো হয় না। আপনি যদি এমন সমস্যায় ভুগে থাকেন তবে নিয়মিত গরম পানি পান করতে পারেন। কারণ নিয়মিত গরম পানি পান করলে তা ঠিকভাবে রক্ত চলাচলে সাহায্য করে। ফলে আপনি সমস্যা থেকে মুক্তি পাবেন সহজেই।

সর্দি কাশি উপশম করে

ঠান্ডা লেগে নাক বন্ধ হয়ে গেলে কিংবা সর্দি কাশিজনিত কারণে সাহায্য নিতে পারেন গরম পানির। এসময় আপনি অল্প অল্প করে গরম পানি পান করতে পারেন। তাতে নাক বন্ধ থাকলে সহজেই খুলে যাবে। সেইসঙ্গে জমে থাকা শ্লেষ্মা দূর করবে।

শরীর ডিটক্স করে

আমাদের শরীরের নানা ধরনের দূষিত পদার্থ জমে থাকে। সেই জমে থাকা দূষিত পদার্থ বের করে দিতে কাজ করে গরম পানি। আপনি যদি হালকা গরম পানির সঙ্গে লেবুর রস মিশিয়ে পান করেন তবে শরীর সহজেই ডিটক্স হবে। এতে শরীরও থাকবে ঝরঝরে ও সতেজ।

গলা ব্যথা বা ভাঙা দূর করে

গলা ব্যথা বা টনসিলজনিত কারণে কুসুম গরম পানি পান বা কুসুম গরম পানিতে একটু লবণ দিয়ে গড়গড়া করলে অনেকটাই আরাম বোধ হয় এবং ফোলাও কমে যায়। 


সর্বশেষ সংবাদ