জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ফটকের সামনে শিক্ষকদের মানববন্ধন

এর আগেও একই দাবিতে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকের সামনে কর্মসূচি করেছেন শিক্ষকরা
এর আগেও একই দাবিতে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকের সামনে কর্মসূচি করেছেন শিক্ষকরা  © ফাইল ছবি

২০২০ সালের পূর্বে অনার্স/মাস্টার্স কোর্সের জন্য নিয়োগকৃত শিক্ষকদের বিষয় অধিভুক্তি প্রদানের দাবিতে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকের সামনে মানববন্ধন করেছেন দেশের বিভিন্ন কলেজের শিক্ষকরা। সোমবার (০৯ মে) সকালে অনার্স/মাস্টার্স শিক্ষকদের সাবজেক্ট অধিভুক্তিকরণ প্রত্যাশী কেন্দ্রীয় কমিটির উদ্যোগে এ কর্মসূচি পালিত হয়।

মানববন্ধন কর্মসূচিতে বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সভাপতি রেজাউল করিম, সাধারণ সম্পাদক মানিক খন্দকার, ফাতেমা জাহান, মো. জাহাঙ্গীর আলম, মো. সাইফুর রহমান প্রমুখ।

মানববন্ধনে শিক্ষক নেতৃবৃন্দ বলেন, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত বেসরকারি কলেজসমূহে ২০২০ সালের পূর্বে নিয়োগ পেলেও বিষয় অধিভুক্তি না পাওয়ায় মানবেতর জীবন যাপন করে আসছি। শিক্ষিত জাতি গঠনে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অবদান অনস্বীকার্য। প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর গরিব ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃক উচ্চ শিক্ষার সুযোগ করে দেয়ায় ঘরে ঘরে শিক্ষিত মানুষ বৃদ্ধি পেয়েছে এটা সর্বজন স্বীকৃত। জাতীয় শিক্ষানীতি ২০১০ এর অধ্যায় ০৮ ও কৌশল ০৬ বাস্তবায়নে দেশের ডিগ্রি কলেজগুলোতে ৪ বছর মেয়াদী অনার্স কোর্স চালু করা হয়েছে।

আরও পড়ুন: জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আমেরিকার বিশ্ববিদ্যালয়

‘‘আমরা শিক্ষিত জাতি ও উন্নত বাংলাদেশ বিনির্মাণের লক্ষ্যে প্রতিষ্ঠিত বেসরকারী কলেজে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিনিধি দ্বারা নিয়োগপ্রাপ্ত হয়েছি। কিন্তু অত্যন্ত পরিতাপের বিষয় শিক্ষকতার মতো মহান পেশায় নিয়োগ পেয়েও বিষয় অধিভুক্তির অপেক্ষায় বছরের পর বছর চলে যাচ্ছে। বিষয় অধিভুক্তি না হওয়ায় আমরা প্রতিষ্ঠান হতে আর্থিক কোন সুবিধা পাচ্ছি না।’’

বক্তারা বলেন,  ইতিমধ্যে সরকারি চাকরীর বয়স পেরিয়ে যাওয়ায় আমরা চরম অনিশ্চয়তায় পড়ে গিয়েছি। আমাদের পরিবার চাকরীর নিশ্চয়তা নিয়ে অত্যন্ত ও অসহায় অবস্থায় দিনাতিপাত করছে। এদিকে ২০১৯ সালের শেষে শিক্ষা মন্ত্রণালয় যত্রতত্র অনার্স কোর্স খুলতে নিরুৎসাহিত করে অনুরোধ করেছিল জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে। সারা বাংলাদেশের অনার্স পর্যায় কলেজগুলোতে ২০২০ সালের আগেই নিয়োগ কার্যক্রম সমাপ্ত হয়েছে।


x

সর্বশেষ সংবাদ