ধৈর্যের বাঁধ ভেঙে গেলে ছাত্রলীগ বসে থাকবে না: লেখক

অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখছেন ছাত্রলীগের সাধারণ লেখক লেখক ভট্টাচার্য
অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখছেন ছাত্রলীগের সাধারণ লেখক লেখক ভট্টাচার্য  © সংগৃহীত

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ক্যাফেটেরিয়ায় ছাত্রলীগের ব্যানারে রাজনৈতিক কর্মসূচি আয়োজনের ঘটনায় শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভকে বাধা হিসেবে দেখছেন সংগঠনটির কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য। রবিবার (১৪ আগস্ট) রাজধানীর সরকারি তিতুমীর কলেজ ছাত্রলীগের উদ্যোগে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

লেখক বলেন, বুয়েট শাখার সাবেক ছাত্রলীগ নেতাদের আয়োজনে ১৫ আগস্টের শোকসভার বিরোধিতা করে সাধারণ শিক্ষার্থীদের নাম করে জামাত-শিবিরের এজেন্ডা বাস্তবায়নের চেষ্টা হয়েছে। দেশের শিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে আমরা সেসব শিক্ষার্থীদের ধিক্কার জানাই। আমরা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছি, ধৈর্যের বাঁধ ভেঙে গেলে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ বসে থাকবে না।

আরও পড়ুন: বুয়েটে ‘পাকিস্তানের প্রেতাত্মারা’ মাথাচাড়া দিয়ে উঠছে: জয়

ছাত্রলীগ সম্পাদক বলেন, মনে রাখবেন আপনারা যতই চেষ্টা করুন না কেন এই বাংলাদেশের বুক থেকে বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে আপনারা ধুলিস্যাৎ করে দিতে পারবেন না। বুয়েটে যে রাজনীতির ইতিহাস রচিত হয়েছিল সেই রাজনীতির ইতিহাসকে আপনারা কখনই সরাতে পারবেন না।

এর আগে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে গত শনিবার সন্ধ্যায় বুয়েটের সেমিনার অডিটোরিয়ামে ‘বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, বুয়েটের সাবেক নেতৃবৃন্দ’ ব্যানারে আলোচনা ও দোয়া অনুষ্ঠানের আয়োজন করে সংগঠনটির সাবেক নেতারা। এ খবরে বুয়েটের কয়েকশ শিক্ষার্থী মিলনায়তনের সামনে জড়ো হয়ে অবস্থান নেন।

বুয়েটের এ ঘটনায় তীব্র প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছেন সংগঠনটির সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয়। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যের এক অনুষ্ঠানে জয় বলেছেন, বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে ‘পাকিস্তানের প্রেতাত্মারা’ মাথাচাড়া দিয়ে উঠছে। তাদের চিহ্নিত করে পারিবারিক ব্যাকগ্রাউন্ড খতিয়ে দেখা হবে। গোয়েন্দা সংস্থাগুলোকে তাদের খুঁজে বের করে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলা করতে হবে।


x

সর্বশেষ সংবাদ