জবিতে ভর্তিচ্ছুদের ফুল দিতে এসে ছাত্রলীগের পিটুনি খেলো ছাত্রদল

হামলা
হামলায় আহত ছাত্রদল নেতা  © টিডিসি ফটো

গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষার্থীদের ফুল দিতে এসে ছাত্রলীগের পিটুনি খেয়েছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা। এঘটনায় শাখা ছাত্রদলের আহ্বায়ক প্রার্থীসহ দুইজন আহত হন।

রবিবার (১৭ অক্টোবর) জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের মুক্তমঞ্চ সংলগ্ন গেটের সামনে এ হামলা হয়। হামলার সময় ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের মাঝে ভীতিকর অবস্থা তৈরি হয়।

জানা যায়, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রদলের আহ্বায়ক পদপ্রার্থী মেহেদী হাসান হিমেলের নেতৃত্বে নেতাকর্মীরা ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের ফুল ও কলম দিয়ে শুভেচ্ছা জানাতে আসে। এসময় ছাত্রলীগকর্মী মফিজুর রহমান হামিম, নাজমুল হাসান মুন্না, শেখ রাসেল, মেহেদী হাসান,  নওশের বিন আলম ডেভিডসহ কয়েকজন ছাত্রদল নেতাকর্মীদের উপর অতর্কিত হামলা করে। এতে গুরুতর আহত হন ছাত্রদলের আহ্বায়ক প্রার্থী মেহেদী হাসান হিমেল এবং শাখা ছাত্রদল নেতা শাহরিয়ার হোসেন।

এছাড়া শিক্ষার্থীদের বরণ করে নেওয়ার সময় শাখা ছাত্রদল নেতা সাইফুল হক তাজ, নাহিদ চৌধুরী, মাহবুব রহমান, রাতুল হাসান, নাছিম উদ্দিন, জামাল হোসেন, জাহিদ হাসান, আব্দুল আজিজ, কুতুব উদ্দিন স্বরণ, আল আমিন, তৌহিদ চৌধুরী উপস্থিত ছিলেন।

হামলার বিষয়ে শাখা ছাত্রদলের আহ্বায়ক প্রার্থী মেহেদী হাসান হিমেল বলেন, ছাত্রসংগঠন হিসেবে ভর্তিচ্ছুদের সহযোগিতা করা আমাদের নৈতিক দায়িত্ব। সে দায়িত্ব পালনে আমরা যখন শিক্ষার্থীদের মাস্ক, কলম ও ফুল দিয়ে সম্ভাষণ জানাচ্ছিলাম। তখন ছাত্রলীগ আমাদের ওপর হামলা করে। আমাদের আহত করাই প্রমাণ করে ছাত্রলীগ কখনো শিক্ষার্থীবান্ধব ছিল না। আমরা ক্যাম্পাসে সহবস্থানের নিশ্চিতের দাবি জানাই। শিগগিরই আমরা ক্যাম্পাসে অবস্থান নিব।

শাখা ছাত্রলীগ নেতা ও জবিস্থ গোপালগঞ্জ জেলা ছাত্রকল্যাণ পরিষদের সভাপতি মফিজুর রহমান হামিম বলেন, পরীক্ষা শুরুর কিছুক্ষণ আগে বিশ্ববিদ্যালয়ের ৩ নং গেইটে কিছু অছাত্র, ছাত্রদলের নেতা কর্মীরা শিক্ষার্থীদের যাতায়তে বিঘ্ন ঘটায়, আমরা তাদের সরে যেতে বললে তাদের সাথে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ