‘ভর্তুকি দিয়ে ঝরে পড়া শিক্ষার্থীদের ফিরিয়ে আনতে হবে’

চট্টগ্রাম নগরীর চেরাগি মোড়ে মহান শিক্ষা দিবস উপলক্ষে আয়োজিত সমাবেশ
চট্টগ্রাম নগরীর চেরাগি মোড়ে মহান শিক্ষা দিবস উপলক্ষে আয়োজিত সমাবেশ  © টিডিসি ফটো

‘‘শিক্ষাব্যবস্থায় বিদ্যমান সংকট নিরসনে সরকারি ভর্তুকি দিয়ে করোনাকালীন সময়ে ঝরে পড়া শিক্ষার্থীদের শিক্ষা জীবনে ফিরিয়ে আনা, ছাত্র সংসদ নির্বাচন দেয়া, ইউজিসির কৌশলপত্র বাতিলসহ ৮ দফা দাবি মেনে নিয়ে শিক্ষাঙ্গনে গণতান্ত্রিক পরিবেশ ফিরিয়ে দিতে হবে।’’

শুক্রবার (১৭ সেপ্টেম্বর) চট্টগ্রাম নগরীর চেরাগি মোড়ে মহান শিক্ষা দিবস উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে গণতান্ত্রিক ছাত্র কাউন্সিল কেন্দ্রীয় অর্থ সম্পাদক এ্যানি চৌধুরী এসব দাবি জানান।

এতে গণতান্ত্রিক ছাত্র কাউন্সিল চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সংগঠক শাহ মোহাম্মদ শিহাবের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন বিপ্লবী ছাত্র-যুব আন্দোলন চট্টগ্রামের সংগঠক তিতাস চাকমা, বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন চট্টগ্রাম জেলা সংসদের যুগ্ম আহ্বায়ক শাহরিয়ার রাফি, বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশন চট্টগ্রামর যুগ্ম আহবায়ক সাইফুর রূদ্র, বিপ্লবী ছাত্র মৈত্রীর সংগঠক আবিদ ইসলাম।

এ্যানি চৌধুরী বলেন, শিক্ষার্থীদের দাবি মেনে নিয়ে তা বাস্তবায়ন করতে হবে। নতুবা সারাদেশের ছাত্র সমাজকে ঐকবদ্ধ করে গণতান্ত্রিক পরিবেশ নির্মাণের জন্য জোরদার আন্দোলন গড়ে তোলা হবে।

সমাবেশে সংহতি জানান পাটকল রক্ষায় শ্রমিক-কৃষক-ছাত্র-জনতা ঐক্যের সদস্য সচিব শ্রমিকনেতা কামাল উদ্দিন, সাবেক ছাত্র নেতা সামিউল আলম রিচি, সত্যজিৎ বিশ্বাস, নাজিম উদ্দিন বাপ্পি, নাহিদ মুস্তফা প্রমুখ।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, বিগত ৫৪৩ দিন ধরে করোনার অজুহাতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ করে রাখা হয়েছিল। এত দীর্ঘ সময় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার নজির পৃথিবীতে বিরল। যার ফলে ঝরে পড়েছে অসংখ্য শিক্ষার্থী। তাদের বেশিরভাগ শ্রমিক মেহনতি দরিদ্র মানুষের সন্তান। অবিলম্বে সরকারি খরচে ভর্তুকির ব্যবস্থা করে তাদের শিক্ষাঙ্গনে ফিরাতে হবে।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ