জবির ১৬ বিভাগে ছাত্রলীগের কমিটি

জবি ছাত্রলীগ
১৬ বিভাগে কমিটি দিয়েছে জবি ছাত্রলীগ  © ফাইল ছবি

১৬টি বিভাগে কমিটি গঠন করছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) শাখা ছাত্রলীগ। আগামী এক বছরের জন্য এ সব কমিটি গঠনা করা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি ইব্রাহিম ফরাজি ও সাধারণ সম্পাদক এসএম আকতার হোসাইনের সই করা পৃথক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী, বাংলা বিভাগে ছাত্রলীগের সভাপতি হয়েছেন তুষার মাহমুদ ও সাধারণ সম্পাদক অর্জুন বিশ্বাস। পরিসংখ্যান বিভাগে সভাপতি আব্দুল্লাহ আল রাফি সাকিব ও সাধারণ সম্পাদক মো. শাহীন আলম। অর্থনীতি বিভাগে সভাপতি প্রিয়দর্শী চাকমা ও সাধারণ সম্পাদক ইকবাল মাহমুদ রানা। নাট্যকলা বিভাগে সভাপতি পদে নাফিস ইসমাম তাশিক ও সাধারণ সম্পাদক পদে রাসেল মাহমুদ দায়িত্ব পেয়েছেন।

লোকপ্রশাসন বিভাগে সভাপতি হিসেবে রাকিবুল হাফিজ অন্তর ও সাধারণ সম্পাদক মো. আরিফুল ইসলাম; ইতিহাস বিভাগে সভাপতি চয়ন কুমার রায় ও সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান; রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগে সভাপতি আহমেদ হাসনাত ও সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ আরিফ; প্রাণিবিদ্যা বিভাগে সভাপতি নাহিদুল ইসলাম হিমেল ও সাধারণ সম্পাদক আবদুল্লাহ আল ফাহিম দায়িত্ব পেয়েছেন।

ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগে সভাপতি বায়েজিদ শেখ ও সাধারণ সম্পাদক মাশরাফি রহমান খাঁন; ফিন্যান্স অ্যান্ড ব্যাংকিং বিভাগে সভাপতি হা-মীম ইবনে বাসার ও সাধারণ সম্পাদক আল-আমিন দিমানকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। নৃবিজ্ঞান বিভাগে সভাপতি হিসেবে মশিউর রহমান শুভ ও সাধারণ সম্পাদক শামসুল আলম রাফি; ভূগোল ও পরিবেশ বিভাগে সভাপতি আকরাম হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক হয়েছেন মো. ইমতিয়াজ আহম্মেদ রওনক।

আরো পড়ুন: ছাত্রলীগের সভাপতি-সম্পাদক হতে চান ২৫২ নেতা

অন্য বিভাগের মধ্যে উদ্ভিদ বিজ্ঞান বিভাগে সভাপতি সোহানুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক আশিকুর রহমান; মনোবিজ্ঞান বিভাগে সভাপতি রাসেল মোল্লা ও সাধারণ সম্পাদক মো. আকিব হায়দার ইমন; ফার্মেসি বিভাগে সভাপতি মো. আসিফ আরাফাত নিলয় ও সাধারণ সম্পাদক এসএম বায়েজিদ; কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগে সভাপতি সুমিত দত্ত ও সাধারণ সম্পাদক তারিদ্দোহা সৌম্য দায়িত্ব পেয়েছেন। 

শাখার সাধারণ সম্পাদক এস এম আকতার হোসাইন বলেন, ‘দীর্ঘদিন যাবৎ জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি হয়নি। যার ফলে অনেক কর্মীই কোনো রাজনৈতিক পরিচয় পাননি। সেজন্যই আমরা বিভাগভিত্তিক কমিটি দিচ্ছি। সামনে যেহেতু নির্বাচন তাই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত শক্তিশালী করতে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ কাজ করবে।’

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি মো. ইব্রাহিম ফরাজী বলেন, ‘জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে হল না থাকায় অনেকে অনার্স-মার্স্টার্স শেষ করেও কোনো রাজনৈতিক পরিচয় পায় না৷ তাই জুনিয়র থাকা অবস্থায় এবং পরিশ্রমী ও ত্যাগীরা যেন একটি পরিচয় পায়, সেজন্য অনুষদ ও বিভাগে কমিটি দেওয়া হচ্ছে। এখন সবাই সক্রিয়ভাবে রাজনীতি করার সুযোগ পাবে। খুব দ্রুত সময়ের মধ্যেই যথাযথ যাচাই-বাছাই করে যোগ্যদের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। বাকি বিভাগগুলোর কমিটিও দ্রুতই দেওয়া হবে।’ 


সর্বশেষ সংবাদ