বেসরকারি শিক্ষকদের দুঃখ-কষ্ট দূর করতে চান রাশেদ

শিক্ষকদের বদলি
রাশেদ মোশাররফ  © টিডিসি ফটো

বেসরকারি স্কুল-কলেজ, মাদ্রাসা ও কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কর্মরত শিক্ষকদের বদলি বাস্তবায়ন, জাতীয়করণসহ শিক্ষকদের ন্যায্য দাবি আদায় নিয়ে কাজ করতে চান ১৬তম শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষায় চূড়ান্তভাবে উত্তীর্ণ মো. রাশেদ মোশাররফ।

গতকাল রোববার (১৭ অক্টোবর) ১৬তম নিবন্ধনের ফল প্রকাশ করা হয়। প্রকাশিত ফলে ট্রেড ইন্সট্রাক্টর শাখা (স্কুল-২) থেকে চূড়ান্তভাবে উত্তীর্ণ হন তিনি।

মো. রাশেদ মোশাররফ জামালপুরের সরিষাবাড়ি উপজেলার বলার দিয়ার গ্রামের মো. শাহা আলী ও শেফালী বেগমের ছেলে। তার বাবা বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর পরিসংখ্যান সহকারী হিসাবে কর্মরত ছিলেন। তিন ভাইয়ের মধ্যে মেজো রাশেদ। তার বড় ভাই ব্যবসায়ী আর ছোট ভাই বিএসসি ইঞ্জিনিয়ার।

জানা গেছে, সরিষাবাড়ি টেকনিক্যাল এন্ড বিজনেস ম্যানেজমেন্ট ইনস্টিটিউট থেকে ২০০৯ সালে ইলেকট্রিক্যাল ট্রেড নিয়ে এসএসসি (ভোকেশনাল) পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন রাশেদ। ২০১৩ সালে ময়মনসিংহ টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং ইনস্টিটিউট থেকে ডিপ্লোমা ইন টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং পাস করেন। এছাড়া নর্দান বিশ্ববিদ্যালয়ের উত্তরা শাখা থেকে টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং বিষয়ে বিএসসি পাস করেছেন তিনি।

মো. রাশেদ মোশাররফ জানান, বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কর্মরত এমপিওভুক্ত এবং নন এমপিও উভয় শিক্ষকদের সুখে-দু:খে পাসে থাকতে চাই। বেসরকারি শিক্ষকরা দীর্ঘদিন ধরে অবহেলিত। তাদের বদলির কোনো ব্যবস্থা নেই। এছাড়া চাকরি থেকে অবসরের পর শিক্ষকদের পেনশন নিয়েও জটিলতা আছে। ভবিষ্যতে এই বিষয়গুলো নিয়ে কাজ করতে চাই।

তিনি আরও বলেন, আমি কারিগরি ব্যাকগ্রাউন্ডের হলেও স্কুল-কলেজ এবং মাদ্রাসা শিক্ষকদের নিয়েও কাজ করতে চাই। বেসরকারি শিক্ষা ব্যবস্থায় বদলি বাস্তবায়ন করতে নতুন কমিটি গঠন করা, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান জাতীয়করণসহ শিক্ষকদের ন্যায্য দাবি আদায়ে সব সময় তাদের পাশে থাকতে চাই।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ