৩০ বছরে ২০০ মসজিদে ক্যালিগ্রাফি এঁকেছেন অনিল কুমার

অনীল কুমার চৌহান
অনীল কুমার চৌহান  © সংগৃহীত

পারিবারিকভাবে হিন্দু ধর্মাবলম্বী হলেও অনীল কুমার চৌহান স্ব-উদ্যোগে ৩০ বছরের ক্যারিয়ারে ভারতের বিভিন্ন জায়গায় দুইশ’র বেশি মসজিদের দেয়ালে আরবিতে কোরআনের আয়াত ও হাদিসের ক্যালিগ্রাফি করেছেন। এক ধর্মের অনুসারী হয়ে অন্য ধর্মের মানুষের জন্যেও কিছু করার প্রবণতা ছিল তার।

ক্যালিগ্রাফি অনীলের নেশা। কিন্তু কোনও আনুষ্ঠানিকভাবে ক্যালিগ্রাফি শেখেননি তিনি। বরং হায়দরাবাদে উর্দু ভাষায় বিভিন্ন দোকানের সাইনবোর্ড পেইন্ট করতে গিয়ে তিনি ক্যালিগ্রাফির প্রতি আকৃষ্ট হয়ে যান। অনীলের ভাষায় আমি একজন গরিব হিন্দু পরিবারের ছেলে। পরিবারকে সাহায্য করতে ১০ম শ্রেণির পর আর পড়াশোনা করতে পারিনি।

অনীল কুমার চৌহান বলেন, আমি ৩০টি মন্দিরে হিন্দু দেব-দেবীর ছবিও এঁকেছি। অনেক দরগা এবং মঠ-আশ্রমেও ছবি এঁকেছি। ১০০টির বেশি মসজিদে আমি টাকার বিনিময়ে ক্যালিগ্রাফি করেছি। তবে আরও ১০০টি মসজিদে কাজ করেছি বিনা পয়সায়।

তিনি বলেন, আমি এসব জায়গার গেলে এক ধরনের আত্মিক টান অনুভব করি। তাই টাকা-পয়সার প্রতি খুব একটা মন টানে না।

নিজের ভালো লাগার জায়গা থেকে তিনি এটা করেন। তিনি বলেন, যেকোনো ধর্মের উপাসনালয়ে সৌন্দর্যবর্ধনের কাজ করতে আমার ভালো লাগে। ভিন্ন এক প্রশান্তি অনুভব করি। এ জন্য এসব জায়গায় কাজ করে পারিশ্রমিক নেই না। আমার কাছে মসজিদ, মন্দির এবং গির্জার মধ্যে কোনো পার্থক্য নেই।

হায়দ্রাবাদের প্রাচীন অঞ্চল চার মিনারের অদূরেই অনীল কুমারের ছোট একটি দোকান আছে। যেখানে তিনি আরবি, উর্দু, হিন্দি, তেলেগু এবং ইংরেজি ভাষায় সাইনবোর্ড লেখার কাজ করেন। তিনি অনলাইনের মাধ্যমেও হস্তলিপির কাজ পান। যার থেকে মাসে কমপক্ষে ৩৫০ ডলার উপার্জন হয়।


মন্তব্য

x