ফুটবল মাঠে দর্শক-সমর্থকদের সংঘর্ষে নিহত ১৭

ফুটবল
মেক্সিকোর দুই ফুটবল ক্লাবের মধ্যকার ম্যাচে দর্শক-সমর্থকদের মারামারির দৃশ্য।  © সংগৃহীত

ফুটবল ম্যাচ চলাকালে মেক্সিকোর লা কোরেগিডোরা স্টেডিয়ামে দর্শক-সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় ১৭ জন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় গুরুতর আহত হয়েছেন আরও ২২ জন লোক। এদের মধ্যে সবাই পুরুষ দর্শক বলে নিশ্চিত করেছে দেশটির জরুরি সেবা বিভাগ।

শনিবার (৫ মার্চ ) মেক্সিকোর দুই ফুটবল ক্লাব কোয়ারেতারতো ও আটলাসের মধ্যকার ম্যাচ চলাকালে এমন সহিংস দাঙ্গার ঘটনা ঘটে। খবর ফ্রান্সের আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম এএফপির ও ইয়াহু নিউজ ডটকমের।

জার্মান সংবাদমাধ্যম ডয়েচেভেলের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, লা কোরেগিডোরা স্টেডিয়ামে ম্যাচের ৬৩তম মিনিটে কোয়ারেতারতো ১-০ ব্যবধানে পিছিয়ে পড়লে ঝামেলা বেধে যায়। আচমকাই আটলাসের সমর্থকদের ওপর আক্রমণ করে বসে কোয়ারেতারতোর সমর্থকরা। মারামারির একপর্যায়ে তারা মাঠে ঢুকে পড়ে। মাঠে ঢুকে পড়ার পরও দুই পক্ষের সমর্থকদের মধ্যে সংঘাত চলতে থাকে। সমর্থকদের এ সময় হাতে চেয়ার, রড ও দেশীয় অস্ত্র নিয়ে দাঙ্গায় অংশ নিতে দেখা গেছে।

আরও পড়ুন: সেই ২৮ নাবিক রোমানিয়ায়, এবার দেশে ফেরার পালা

সংঘর্ষের ঘটনায় স্টেডিয়ামের বিভিন্ন জায়গায় অনেকের লাশ পড়ে থাকতে দেখা যায়। এতে এখন পর্যন্ত মোট ৪৪ জন লোক হাতহত হয়েছেন। তবে এই হতাহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

এদিকে এ ঘটনার পর তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন মেক্সিকান লিগের নির্বাহী প্রেসিডেন্ট মাইকেল আরিওলা পেনালোসা। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটারে তিনি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানিয়েছেন, দায়ী ব্যক্তিদের কঠোর শাস্তি দেওয়া হবে। তিনি টুইটার বিবৃতিতে বলেন, ‘লা কোরেগিডোরা স্টেডিয়ামে হওয়া সংঘর্ষ অগ্রহণযোগ্য ও দুর্ভাগ্যজনক। যারা স্টেডিয়ামে নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ হয়েছে তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেওয়া হবে। সবার আগে আমাদের সমর্থক ও খেলোয়াড়দের নিরাপত্তার বিষয়টি দেখা হবে।’

এরপরেই তিনি আরেকটি স্ট্যাটাসে জানান, মেক্সিকান লিগের খেলায় স্টেডিয়ামের ভিতরে এবং বাইরে সংঘটিত সহিংস ঘটনাগুলোর তদন্ত ইতিমধ্যে শুরু হয়েছে। সেই সঙ্গে তিনি মেক্সিকান ফুটবল ফেডারেশনের ডিসিপ্লিনারি কমিশনকে কঠোর নিষেধাজ্ঞার জন্য প্রস্তুত হতে বলেছেন। সহিংস অপরাধমূলক কাজের জন্য ফৌজদারি মামলাও দায়ের করা হবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

পাশাপাশি শিগগির তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশ করা হবে বলে জানিয়েছে মেক্সিকোর ফুটবল ফেডারেশনের ডিসিপ্লিনারি কমিশন।

আরও পড়ুন: উচ্চমাধ্যমিকের পাঠ্যবইয়ে কলসিন্দুরের নারী ফুটবলারদের গল্প

টুইটার বিবৃতিতে তিনি আরও জানান, কিছু লোককে ইতিমধ্যে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তবে তিনি নিশ্চিত করে হাতাহতের কোনও সংখ্যা উল্লেখ করেননি।

কোয়েরেতারোর গভর্নর মাউরিসিও কুরিও সহিংসতার নিন্দা জানিয়ে বলেছেন,  কী কারনে এমন দাঙ্গার সূত্রপাত ঘটলো এর জবাব নিরাপত্তার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলিকে দিতে হবে। এর আগে দুটি লিগই (কোয়েরেতারো এবং অ্যাটলাস) পৃথক বিবৃতিতে এ দাঙ্গার সঙ্গে জড়িত দোষী ব্যক্তিদের শাস্তি দেয়ার জন্য কর্তৃপক্ষকে আহ্বান জানান।

উল্লেখ্য, মেক্সিকোর সংবাদমাধ্যম টিইউডিএম জানিয়েছে, এই ঘটনার পর মেক্সিকান লিগের সব খেলা আপাতত স্থগিত ঘোষণা করা হয়েছে। কিন্তু সে যাই হোক মারামারির ঘটনা মেক্সিকান লিগে এর আগেও ঘটেছে। তবে এমন ভয়াবহ মাত্রার দাঙ্গা-হাঙ্গামা পূর্বে ঘটেনি।


x

সর্বশেষ সংবাদ