বর্ণবিদ্বেষে অভিনব প্রতিবাদ জানাবে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া

অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট
অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল  © ইন্টারনেট

করোনাভাইরাসের পাশাপাশি বিশ্বজুড়ে বর্ণবাদের বিপক্ষেও জোরালো জনমত গড়ে উঠেছে। সারা বিশ্বের বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষের সঙ্গে ক্রীড়াবীদরাও নানানভাবে বর্ণবাদের প্রতিবাদ জানিয়ে আসছে। ক্রীড়াবীদরা মূলতঃ খেলা শুরুর আগে হাঁটুমুড়ে বর্ণবাদের প্রতিবাদ জানান।

তবে এবার হাঁটুমুড়ে নয়, অভিনব কায়দায় বর্ণবিদ্বেষের প্রতিবাদ জানাবে অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটাররা। খালি পায়ে গোল হয়ে দাঁড়িয়ে এই প্রতিবাদে অংশ নেবে স্টিভেন স্মিথ-ডেভিড ওয়ার্নার-অ্যারোন ফিঞ্চরা।

ভারতের বিপক্ষে সিরিজে বর্ণবিদ্বেষের বিরুদ্ধে ঠিক এমনই অভিনব প্রতিবাদ জানাতে চলেছে অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটাররা। মার্কিন কৃষ্ণাঙ্গ নাগরিক জর্জ ফ্লয়েডের মর্মান্তিক হত্যার পর বিশ্বজুড়ে শুরু হয়েছে ‘ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার’ নামক আন্দোলন।

জাস্টিন ল্যাঙ্গারের শিষ্যরা বরং অস্ট্রেলিয়া নারী ক্রিকেট দলের প্রতিবাদের মডেলই অনুকরণ করতে চলেছেন। তাদের এই মডেলকে বলা হচ্ছে ‘বেয়ারফুট সার্কেল’। প্রথমবার এই দৃশ্য দেখা যাবে ২৭ নভেম্বরের ওয়ানডেতে।

ইংল্যান্ড সিরিজে ক্রিকেটাররা হাঁটু মুড়ে বসে বর্ণবাদের প্রতিবাদ না করায় সমালোচনার মুখে পড়তে হয়েছিল পুরো অস্ট্রেলীয় দলকে। বর্ণবিদ্বেষের বিরুদ্ধে কিভাবে প্রতিবাদ জানানো যায়, বহুদিন ধরেই সেই পরিকল্পনা করতে ব্যস্ত ছিল অস্ট্রেলিয়া।

অবশেষে বেয়ারফুট সার্কল নামক অভিনব প্রতিবাদের নতুন উপায় বের করলো অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেট বোর্ড। যা নিয়ে অস্ট্রেলিয়ার তারকা পেসার প্যাট কামিন্স বললেন, ‘বর্ণবিদ্বেষকে চিরতরে মুছে দিতে হবে। এজন্য আমরা সবাই প্রতিবাদ করতে তৈরি। হাঁটু মুড়ে হয়তো আমরা বসছি না; কিন্তু বেয়ারফুট সার্কেলের মাধ্যমে আমরা আমাদের মতো করে প্রতিবাদ জানাচ্ছি।’

ক্রিকেটারদের সমালোচনায় বিদ্ধ হওয়া নিয়ে কামিন্স আবার যোগ করেন, ‘এটা ঠিক বর্ণবিদ্বেষের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানাতে আমরা এতদিন কিছু করিনি। এ জন্য অনেক সমালোচনাও করা হয়েছে আমাদের। তাই এই বেয়ারফুট সার্কেলের মাধ্যমে অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটাররা এটা অন্তত প্রমাণ করে দেবে যে মানুষ হিসাবে আমরা সবাই বর্ণবিদ্বেষের বিরুদ্ধে।’


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ