ফ্রি ফায়ারে রুপি খরচ, মায়ের বকাতে ছাত্রের আত্মহত্যা

ফ্রি ফায়ার
ফ্রি ফায়ারে রুপি খরচ, মায়ের বকাতে ছাত্রের আত্মহত্যা  © সংগৃহীত

বর্তমান কিশোররা ফ্রি-ফায়ার এবং পাবজি গেমে সবচেয়ে বেশি আসক্ত। এসব গেমের কারনে অনেকের পড়ালেখারও সর্বনাশ হয়েছে। এরমধ্যে করোনায় স্কুল কলেজ বন্ধ হওয়ায় এসকল গেমে আরও বেশি আসক্ত হয়ে গেছে শিক্ষার্থীরা। তেমনি ভারতের মধ্যপ্রদেশে ছাতারপুর জেলায় মোবাইলে ফ্রি ফায়ার গেমে আসক্ত হয়ে পড়েছিল ষষ্ঠ শ্রেণির এক ছাত্র। খেলতে খেলতে একপর্যায়ে মায়ের অ্যাকাউন্ট থেকে ৪০ হাজার রুপি খরচ করে ফেলে সে। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে বকাবকি করেন মা। আর তাতেই গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করে ছেলেটি। শুক্রবার এ মর্মান্তিক ঘটনা ঘটে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের খবরে জানা যায়, গত শুক্রবার সন্ধ্যায় ছাতারপুর শহরের বাসিন্দা স্কুলপড়ুয়া ওই কিশোর নিজের বাড়িতে আত্মহত্যা করে। তার বাবা প্যাথোলজি ল্যাবে কাজ করেন, মা নার্স। ঘটনার সময় তারা কেউই বাড়িতে ছিলেন না। মৃত্যুর আগে সুইসাইড নোট রেখে গেছে ছেলেটি। সেখানে মায়ের কাছে ক্ষমা চেয়ে আত্মহত্যার কারণ হিসেবে নিজের অবসাদকে দায়ী করেছে সে।

জানা যায়, অনলাইন গেম ফ্রি ফায়ার খেলতে গিয়ে মায়ের ইউপিআই অ্যাকাউন্ট থেকে ৪০ হাজার রুপি ‘অপচয়’ করে ফেলে ওই কিশোর। মোবাইলে টাকা কেটে নেয়ার মেসেজ পেয়ে ছেলেকে ফোন করে বকাবকি করেন তার মা। এরপরেই ঘরের দরজা আটকে দেয় ছেলেটি। কিছু সময় পর বিষয়টি নজরে আসে তার বোনের। ডাকাডাকির পর দরজা না খুললে বিষয়টি তাদের বাবা-মাকে জানানো হয়। এরপর, দরজা ভেঙে ভেতরে ঢুকে কিশোরের ঝুলন্ত মরদেহ পাওয়া হয়।


মন্তব্য

এ বিভাগের আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ