খুবি শিক্ষকের বিরুদ্ধে ২২ ছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগ

ফিগার
খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়  © ফাইল ফটো

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের (খুবি) ড্রয়িং এন্ড পেইন্টিং ডিসিপ্লিনের সহকারী অধ্যাপক বিটপ শোভন বাছাড়ের বিরুদ্ধে তার ডিসিপ্লিনের শিক্ষার্থীদের যৌন হয়রানির অভিযোগ উঠেছে। ওই ডিসিপ্লিনের ব্যাচের ২২ শিক্ষার্থী বিশ্ববিদ্যালয়ের যৌন নিপীড়ন প্রতিরোধ সেলে লিখিত অভিযোগ জানিয়েছেন। এই ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ওই শিক্ষককে বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক কার্যক্রম থেকে সাময়িক অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, বিভিন্ন সময় নিজ ডিসিপ্লিনের ছাত্রীদেরকে শারীরিক ও মানসিক ভাবে যৌন হয়রানির করে আসছিল অভিযুক্ত শিক্ষক। যেসব মেয়েদেরকে পছন্দ হত তাদেরকে সবচেয়ে বেশি সুযোগ সুবিধা দিতেন। ফিগার পেইন্টিংয়ের ক্ষেত্রে মেয়েদেরকে আপত্তিকর কিছু বলা হত এবং সেই অনুযায়ী কাজও করতে বলতেন। তিনি ছেলেদেরকে কোনভাবে সহ্য করতে পারতেন না। বিভিন্নভাবে নিজেকে গুরু মানতে বাধ্য করার চেষ্টা করতেন এবং যেসব শিক্ষার্থীরা ওই শিক্ষকের শিষ্য গ্রহন করবে তাদেরকে সকল সুযোগ সুবিধা দেওয়া হবে।ড্রয়িং ও পেইন্টিং শেখার ক্ষেত্রে যারা শিষ্যত্ব গ্রহণ করবে তাদেরকে সবকিছু ত্যাগ করতে হবে। যখন তখন তাকে সময় দিতে হবে।

বিভিন্ন ব্যাচের সুন্দরী মেয়েদের লক্ষ্য করে তাদেরকে ক্যাম্পাসে একা দেখা করতে বলে বারবার। আবার কোনো ছাত্রী যদি সাথে কাউকে নিয়ে দেখা করতে যায় তাহলে ঝাড়ি দিয়ে বের করে দেয়।

আরও পড়ুন: সন্ত্রাসীদের গুলিতে বাবার কোলে থাকা মেয়ে নিহত

এ বিষয়ে অভিযুক্ত সহকারী অধ্যাপক বিটপ শোভন বাছাড় বলেন, অভিযোগের ব্যাপারে বিস্তারিত জানি না। এ ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এখনো কোন পত্র দেওয়া হয়নি। শুধু ডিসিপ্লিন প্রধান বরাবর সাময়িক অব্যহতির চিঠি দেওয়া হয়েছে।

গুরু শিষ্যের ব্যাপারে বলেন, শিক্ষার্থীরা আসলে এই টার্মই বুঝে না। যার জন্য তারা বিষয়টিকে ভুলভাবে ব্যাখা করছে। তার দাবি এই ধরনের কাজ তিনি করেন নি। কোনভাবে এই ঘটনায় কারও ইন্ধনে এমনটাই হচ্ছে বলে মনে করেন।

ওই সেলের প্রধান মোসা. তাসলিমা খাতুন বলেন, অভিযোগ পাওয়ার পরে বিষয়টি আমলে নেওয়া হয়েছে।


x