সকাল থেকে শুরু হয়েছে ভর্তির সাক্ষাৎকার, এখনো চলছে

শিক্ষার্থীরা
ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীরা  © টিডিসি ফটো

জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (জাককানইবি) ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে কোটা থেকে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের অতিরিক্ত চাপে সাক্ষাৎকার গ্রহণে বিলম্ব এবং বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি হয়েছে। সকাল থেকে শুরু হওয়া ভর্তির এই সাক্ষাৎকার এখনো চলছে। একাধিক শিক্ষার্থী অভিযোগ করেছেন, নির্ধারিত এক দিনে সকল ইউনিটের সকল কোটার শিক্ষার্থীদের সাক্ষাৎকারের জন্য ডাকায় এই বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি হয়েছে। যার ফলে বেড়েছে দুর্ভোগ ও ভোগান্তি।

মঙ্গলবার (২৫ জানুয়ারি) রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে কোটার মেধা তালিকা প্রকাশ করা হয় এবং ২৭ জানুয়ারি সবাইকে সাক্ষাৎকারের জন্য ডাকা হয়। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত এই সাক্ষাৎকার গ্রহণ চলছিল বলে জানা গেছে।

আরও পড়ুন: সিঙ্গাপুরে ফুল ফ্রি স্কলারশিপ, সঙ্গে মাসিক ২ লাখ টাকা উপবৃত্তি

খাগড়াছড়ি থেকে আসা যশ্বিস চাকমা বলেন, সকালে এসে রিপোর্টিং করেছি। অনেক শিক্ষার্থী এসেছে, এজন্য বিভিন্ন কোটার সাক্ষাৎকার নিতে নিতে রাত হয়ে গেছে।

আরেক ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থী জেন্তি চাকমা বলেন, সকাল থেকে বাবাসহ অপেক্ষা করছি। এখনো সাক্ষাৎকার দিতে পারি নি। কোটায় ভর্তিচ্ছু সকলের সাক্ষাৎকার একদিনে হওয়ায় ভোগান্তি বেড়েছে।

ভাইভা দিতে আসা শিক্ষার্থীর অভিভাবক মোখলেসুর রহমান বলেন, আমি সকালে আমার সন্তানের রিপোর্টিং করানোর পর প্রশাসনিক ভবনে আছি। কিন্তু আমার সন্তানের ভাইভা এখনো শেষ হয়নি। যদি সবাইকে এক সাথে ভাইভা না নিয়ে ভাগ করে নিত তাহলে এই সমস্যা হতো না।

আরও পড়ুন: বিশ্ববিদ্যালয়ের জমি অধিগ্রহণ নিয়ে অপপ্রচার চলছে: দীপু মনি

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার কৃষিবিদ ড. হুমায়ুন কবির বলেন, শিক্ষার্থীদের কোটা সংক্রান্ত কাগজপত্র এবং সার্টিফিকেট যাচাই-বাছাই করতে দেরি হচ্ছে। এজন্য সময় দিতে হচ্ছে বেশি। মূলত সকল ইউনিটের প্রধানদের সমন্বয়ে একটি সাক্ষাৎকার বোর্ড থাকে। তবে সময় বেশি লাগায় এখন একাধিক বোর্ড গঠন করে সাক্ষাৎকার নেওয়া হচ্ছে।

তিনি আরও জানান, ইতিমধ্যে কলা অনুষদ এবং আইন অনুষদের সাক্ষাৎকার গ্রহণ শেষ হয়েছে। সাক্ষাৎকার গ্রহণ চলছে সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদ ও ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদের।


x

সর্বশেষ সংবাদ