অধ্যক্ষের ফোনালাপ ফাঁসের তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ

অধ্যক্ষ কামরুন নাহার মুকুল
অধ্যক্ষ কামরুন নাহার মুকুল  © সংগহীত

রাজধানীর ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষের ফোনালাপ ফাঁসের ঘটনায় তদন্ত কমিটির প্রতিবেদন আগামী ৩১ অক্টোবরের মধ্যে দাখিলের নির্দেশ দিয়েছে উচ্চ আদালত। রাষ্ট্রপক্ষের করা সময়ের আবেদনের প্রেক্ষিতে বৃহস্পতিবার বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের ভার্চুয়াল হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেয়।

অধ্যক্ষ কামরুন নাহার মুকুল ও প্রতিষ্ঠানটির অভিভাবক ফোরামের নেতা মীর সাহাবুদ্দিন টিপুর ফোনালাপ ফাঁসের ঘটনায় শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের গঠিত তদন্ত কমিটিকে এই নির্দেশনা দিয়েছে আদালত।

এর আগে, গত ২৬ জুলাই দৈনিক দেশ রূপান্তর পত্রিকায় ‘আমি কিন্তু বালিশের নিচে পিস্তল রেখে ঘুমাতাম’ শীর্ষক একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। এতে ভিকারুননিসা স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ কামরুন নাহার মুকুল এবং অভিভাবক ফোরামের নেতা মীর সাহাবুদ্দিন টিপুর ফোনালাপে অধ্যক্ষের আপত্তিকর ভাষা ব্যবহারের বিষয়টি উঠে আসে।

পড়ুন: ‘আমার পেছনে লাগলে শুধু ভিকারুননিসা না, দেশ ছাড়া করব’-অধ্যক্ষের ফোনালাপ

ভিকারুননিসার অধ্যক্ষ ও ওই ব্যক্তির ফোনালাপ ফাঁসের ঘটনার পর সমালোচনার ঝড় উঠে। কামরুন নাহার মুকুলের বিরুদ্ধে অসদাচরণ ও দুর্নীতির অভিযোগের বিষয়ে বিচার বিভাগীয় তদন্ত এবং একজন জ্যেষ্ঠ শিক্ষককে দায়িত্ব দিয়ে অধ্যক্ষ হিসেবে কামরুন্নাহার মুকুলের দায়িত্ব পালনের ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা চেয়ে করা রিট আবেদন করেন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের দুই শিক্ষার্থীর অভিভাবক মোহাম্মদ মোরশেদ আলম।

এতে অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা না নেওয়ায় বিবাদীদের ব্যর্থতা এবং নিষ্ক্রিয়তা কেন অবৈধ হবে না এবং বিভাগীয় ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ কেন দেওয়া হবে না- এ মর্মে রুল চাওয়া হয়।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী বিপুল বাগমার বলেন, আদালতে বলেছি, প্রাথমিক তদন্ত হচ্ছে। পূর্ণ তদন্ত হতে আরও সময়ের প্রয়োজন। আদালত আগামী ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত সময় দিয়েছেন।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ