খুবিতে তিন দিনব্যাপী আন্তর্জাতিক আইসিইসিআইটি সম্মেলন সমাপ্ত

খুবি
খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়  © ফাইল ছবি

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে (খুবি) ইলেক্ট্রনিক্স এন্ড কমিউনিকেশন্স ইঞ্জিনিয়ারিং (ইসিই) ডিসিপ্লিন আয়োজিত তিন দিনব্যাপী ‘ইন্টারন্যাশনাল কনফারেন্স অন ইলেক্ট্রনিক্স, কমিউনিকেশন্স এন্ড ইনফরমেশন টেকনোলজি-২০২১’ (আইসিইসিআইটি) শীর্ষক ভার্চুয়াল আন্তর্জাতিক সম্মেলন শেষ হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় সমাপনী অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে এ সম্মেলন শেষ হয়। সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সম্মেলনের চিফ প্যাট্রন ও বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মাহমুদ হোসেন।

তিনি বলেন, এই আন্তর্জাতিক সম্মেলন সফল হওয়ায় খুলনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের সুনাম বৃদ্ধির সাথে সাথে এখান থেকে পাওয়া সুপারিশ ও দিকনির্দেশনা ভবিষ্যতে কাজে লাগানো যাবে। এই সম্মেলন নবীন-প্রবীণ গবেষকদের মধ্যে পারস্পারিক যোগাযোগের সুবিধা সৃষ্টি করেছে, যার দ্বারা খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের নবীন শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা গবেষণায় অনুপ্রাণিত হবে।

তিনি এই সম্মেলনে অংশগ্রহণকারী সকল দেশের প্রতিনিধিদের আন্তরিক শুভেচ্ছা ও ধন্যবাদ জানান।

তিনি আরও বলেন, উষ্ণায়ন, আবহাওয়া ও জলবায়ুগত পরিবর্তনজনিত সমস্যাসহ বিশ্বের সামনে উদ্ভূত নতুন নতুন চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় আমাদের শিক্ষা ব্যবস্থায়ও পরিবর্তন দরকার। এসব বিষয়ে গবেষণা জোরদারে মনোযোগী হতে হবে। খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রত্যেক স্কুলের পক্ষ থেকে বছরে একটি আন্তর্জাতিক সম্মেলন আয়োজন করার আহ্বান জানান তিনি।

সম্মেলনে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সম্মেলনের প্যাট্রন ও বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. মোসাম্মাৎ হোসনে আরা, বিজ্ঞান, প্রকৌশল ও প্রযুক্তিবিদ্যা স্কুলের ডিন প্রফেসর ড. আফরোজা পারভীন, কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং (সিএসই) ডিসিপ্লিন প্রধান প্রফেসর ড. জি এম আতিকুর রহমান, নগর ও গ্রামীণ পরিকল্পনা (ইউআরপি) ডিসিপ্লিন প্রধান প্রফেসর ড. মো. আশিক উর রহমান।

অনুষ্ঠানে সূচনা বক্তব্য রাখেন অর্গানাইজিং কমিটির সভাপতি প্রফেসর ড. মো. মনিরুজ্জামান।

আরও বক্তব্য রাখেন টেকনিক্যাল কমিটির সভাপতি প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ইসমত কাদির ও সদস্য-সচিব প্রফেসর ড. মো. আব্দুল আলিম। সভাপতিত্ব ও ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন অর্গানাইজিং কমিটির সদস্য-সচিব ইসিই ডিসিপ্লিনের প্রধান প্রফেসর ড. মো. শামীম আহসান।

সম্মেলনে বাংলাদেশসহ বিশ্বের ১৬টি দেশের ৩০টি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিনিধি অংশ নেন। দেশগুলো হচ্ছে বাংলাদেশ, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা, যুক্তরাজ্য, আয়ারল্যান্ড, ফিনল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া, জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া, চীন, মালয়েশিয়া, ভিয়েতনাম, ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা ও নেপাল।

সম্মেলনে ৩১২টি গবেষণা প্রবন্ধ জমা হয়। যার মধ্যে ১২৩টি গৃহীত হয়। এর মধ্যে ১১৯টি উপস্থাপন করা হয়। সম্মেলনে মোট ৪৪টি সেশনের মধ্যে ২৪টি ছিলো টেকনিক্যাল সেশন।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ