অপহরণের নাটক সাজিয়ে টাকা নিতে গিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র আটক

অপহরণের নাটক সাজিয়ে টাকা নিতে গিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র আটক
  © সংগৃহীত

চট্টগ্রাম নগরের একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম বর্ষের এক শিক্ষার্থী (১৮) বন্ধুদের পাল্লায় পড়ে নেশায় আসক্ত হয়ে পড়েন। নেশার টাকা জোগাড় করতে শুরু হয় টাকা ধার নেওয়া। একপর্যায়ে পাওনাদারেরা টাকা চাইতে থাকলে টাকা জোগাড় করতে অপহরণের নাটক সাজান তিনি। গতকাল রোববার পরিবারের পক্ষ থেকে অপহরণের অভিযোগ পাওয়ার পর পুলিশ তাকে উদ্ধার করেছে।

নগর পুলিশের অতিরিক্ত উপকমিশনার (দক্ষিণ) নোবেল চাকমা  বলেন, ভারতীয় ধারাবাহিক ‘ক্রাইম পেট্রল’ দেখে ওই শিক্ষার্থী অপহরণের নাটক সাজান। পরিকল্পনামতো তিনি এক বন্ধুকে নিয়ে নগরের চকবাজার এলাকার একটি চায়ের দোকানে যান। পরে ওই বন্ধু ফোন দিয়ে তাঁর মাকে বলেন, ‘আপনার ছেলে আমাদের কবজায়। ছেলেকে জীবিত ফিরে পেতে চাইলে দুই লাখ টাকা দিতে হবে।’

এরপর ওই শিক্ষার্থীর কাছে মুঠোফোন দেওয়া হয়। সাজানো নাটক অনুযায়ী তিনি তার মাকে বলেন, তাকে নগরের গুলজার মোড় থেকে একটি গাড়িতে করে চারজন লোক তুলে নিয়েছে। এ সময় নাকে রুমাল চেপে ধরে অজ্ঞান করা হয় তাঁকে। মুক্তিপণের জন্য তাকে ইলেকট্রিক শক ও মারধর করা হচ্ছে। দ্রুত টাকার ব্যবস্থা করতে হবে। বিষয়টি শোনার পর ওই শিক্ষার্থীর বাবা চকবাজার থানায় যান।

নোবেল চাকমা বলেন, শিক্ষার্থীর বাবার অভিযোগ পাওয়ার পর তথ্যপ্রযুক্তির সহায়তায় তার অবস্থান শনাক্ত করা হয়। পরে নগরের বাকলিয়া নতুন ব্রিজ এলাকা থেকে তাঁকে উদ্ধার করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদে প্রথমে এলোমেলো তথ্য দেন তিনি। একপর্যায়ে ক্রাইম পেট্রল দেখে অপহরণের নাটক সাজানোর কথা স্বীকার করেন।

ওই শিক্ষার্থীর দেওয়া তথ্য অনুযায়ী তার বন্ধুকেও আটক করে পুলিশ। পরে মুচলেকা নিয়ে দুজনকে পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে বলে জানান পুলিশের এ কর্মকর্তা। তিনি বলেন, এক দিনে ওই কিশোর নেশায় আসক্ত হয়নি। পরিবার খেয়াল রাখলে হয়তো এ দিকে পা বাড়াত না।


x

সর্বশেষ সংবাদ