প্রাকৃতিক পরিবেশে প্রতিষ্ঠিত আইআইইউসি অন্য বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ভিন্ন: ভূমিমন্ত্রী

অনুষ্ঠান
ওরিয়েন্টেশন অনুষ্ঠান  © টিডিসি ফটো

আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় চট্টগ্রাম (আইআইইউসি) এর বসন্তকালীন সেমিস্টার ২০২২ সালের ওরিয়েন্টেশন অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ। আজ রবিবার (৯ জানুয়ারি) আইআইইউসি অডিটোরিয়ামে নবীন শিক্ষার্থীদের নিয়ে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানে ভুমিমন্ত্রী বলেন, বিশাল অবকাঠামোসহ নয়নাভিরাম প্রাকৃতিক পরিবেশে প্রতিষ্ঠিত আইআইইউসি দেশের অন্য যেকোন বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পৃথক বৈশিষ্ট্যমন্ডিত। নতুন করে সাজানো গেলে বিশ্ববিদ্যালয়টিকে বিশ্বের অন্যতম সেরা বিশ্ববিদ্যালয়ে পরিণত করা সময়ের ব্যাপার।

আরও পড়ুন: ক্যাম্পাসে স্বাস্থ্যবিধি মানা নিয়ে ঢাবি প্রশাসনের জরুরি বিজ্ঞপ্তি

তিনি নবীন শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে আরও বলেন, সবকিছুর উর্ধে দেশের স্বার্থকে প্রাধান্য দিতে হবে। দেশকে ভালোবাসতে হবে। এটাও একটা ইবাদত। সব সময় দেশ ও জাতির জন্য ভালো কিছু করার মানসিকতা পোষণ করতে হবে। দেশ কি দেবে সেই প্রশ্ন না করে তুমি দেশকে কি দেবে সেটাই সবসময় মনে রাখতে হবে। তিনি বলেন, নতুন প্রজন্মের মাঝে দেশপ্রেম জাগ্রত করতে হলে দেশের স্বাধীনতার প্রকৃত ইতিহাস জানতে হবে।

ভূমিমন্ত্রী ইসলামকে একটি সার্বজনীন অত্যন্ত সহনশীল ধর্ম হিসেবে আখ্যায়িত করে বলেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কখনো ইসলাম বিরোধী ছিলনা, বরাবরই ইসলামের পক্ষেই ছিল। ধর্মকে ব্যবহার করে অপরাজনীতি বন্ধ করতে হবে। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু ওআইসি'র উদ্যোক্তাদের অন্যতম ছিলেন। বঙ্গবন্ধু স্বপ্ন দেখতেন মসজিদুল আকসা আবার মুসলমানদের কাছে ফিরে আসবে।

অনুষ্ঠানে আইআইইউসি উপাচার্য অধ্যাপক আনোয়ারুল আজিম আরিফের সভাপতিত্বে আরও উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের বোর্ড অব ট্রাস্টিজর চেয়ারম্যান ও সংসদ সদস্য প্রফেসর ড. আবু রেজা মুহাম্মদ নেজামুদ্দিন নদভী, খাদিজাতুল আনোয়ার সনি এমপি, প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মো. মাছরুরুল মাওলা, আইআইইউসির বোর্ড অব ট্রাস্টিজের সদস্য ড. ইঞ্জিনিয়ার রশীদ আহমদ চৌধুরী, মিসেস রিজিয়া সুলতানা চৌধুরী, ট্রেজারার প্রফেসর ড. মুহাম্মদ হুমায়ুন কবির।

সংসদ সদস্য প্রফেসর ড. আবু রেজা মুহাম্মদ নেজামুদ্দিন নদভী বিশ্ববিদ্যালয়টির অবকাঠামোগত উন্নয়নের কথা তুলে ধরে তিনি বলেন, ২০০৮ সালের পর থেকে আইআইইউসি'র অবকাঠামোগত উন্নয়নের ক্ষেত্রে বিরাজমান বন্ধ্যাত্ব কাটিয়ে ব্যাপক উন্নয়ন কার্যক্রম শুরু হয়েছে। এই বিশ্ববিদ্যালয়ের নব্বই শতাংশ শিক্ষক বিদেশি ডিগ্রিধারী।

আরও পড়ুন: কক্ষ দখলে নিয়ে পছন্দের শিক্ষার্থী তুলছেন ছাত্রলীগের নেতারা

উপাচার্য প্রফেসর আনোয়ারুল আজিম আরিফ বলেন, গুণগত দিক আইআইইউসি নিঃসন্দেহে আন্তর্জাতিক মানের একটি বিশ্ববিদ্যালয়। এই বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-ছাত্ররা বিশেষ গোষ্ঠী দ্বারা পরিচালিত মর্মে যে ধারণা বাজারে প্রচলিত রয়েছে তাকে সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন উল্লেখ করে তিনি বলেন, আইআইইউসি'তে সম্পূর্ণ মুক্ত পরিবেশে অত্যন্ত মান সম্মত শিক্ষার পরিবেশ বিরাজমান।


x