প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হতে না পেরে তরুণীর আত্মহত্যা

প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হতে না পেরে তরুণীর আত্মহত্যা
প্রতীকী  © ফাইল ছবি

অর্থাভাবে প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হতে না পেরে ফারজানা বিন কাইয়ুম (২১) তরুণী গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। আজ বুধবার (২৮ জুলাই) বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে রাজধানীর সেগুনবাগিচার একটি বাসায় এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনার পর অচেতন অবস্থায় ঢামেক হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক সন্ধ্যা সোয়া ৬টার দিকে তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন। ঢামেক হাসপাতালের পুলিশ বক্সের ইনচার্জ (পরিদর্শক) বাচ্চু মিয়া মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে রাখা হয়েছে।

মৃত ফারজানা বর্তমানে রাজধানীর সিটি কলেজে ম্যানেজমেন্টে বিভাগে পড়াশোনা করছিলেন। তার বাবার নাম আইয়ুব আলী মৃধা। তাদের গ্রামের বাড়ি ঝালকাঠি জেলার কাঠালিয়া উপজেলায়। বর্তমানে সেগুনবাগিচা ‘নগর ছায়ানীড়’ ১৫ তলা ভবনের তৃতীয় তলায় থাকেন। দুই বোন এক ভাইয়ের মধ্যে ফারজানা ছিল দ্বিতীয়।

ফারজানার বাবা জানান, ফারজানার ইচ্ছা ছিল প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়বে। বড় মেয়ে একটি প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ে। ছোট ছেলে একটি মাদ্রাসায় পড়ে। আর্থিক ভাবে কুলিয়ে উঠতে পারছিলাম না। পরে ফারাজানাকে সিটি কলেজে ম্যানেজমেন্টে ভর্তি করি। করোনার কারণে ক্লাস বন্ধ। বাসায় থেকেই পড়াশোনা করত।

তিনি জানান, আজও ভর্তির বিষয় নিয়ে কথা-কাটাকাটি হয়। ফারজানাসহ পরিবারের সবাই বাসাতেই ছিল। তিনি বাইরে মসজিদে নামাজ পড়তে যান। এর মধ্যে ফারজানা বাথরুমে ঢোকে। অনেক সময় পার হয়ে গেলেও ফারজানার কোনো সাড়াশব্দ পাওয়া যায় না। পরে দরজা ভেঙে দেখা যায়, শাওয়ারের সঙ্গে ওড়না বেঁধে গলায় পেঁচিয়ে ঝুলে আছে।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ