বৈধ ভিসি নিয়োগ না দিলেও লাল তালিকাভুক্ত হবে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়

ইউজিসি
বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন  © ফাইল ফটো

ভিসি, প্রো-ভিসি ও ট্রেজারার নিয়োগে আইনের বাধ্যবাধকতা থাকলেও অধিকাংশ বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে গুরুত্বপূর্ণ এসব পদ পূরণে অনীহা অনেক আগের। শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন (ইউজিসি) থেকে এসব গুরুত্বপূর্ণ পদে নিয়োগে প্রস্তাব পাঠানোর জন্য দীর্ঘদিন ধরেই তাগাদা দিয়ে আসলেও তেমন সাড়া মিলছে না। 

সংশ্লিষ্টরা বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্টি বোর্ড (বিওজি) শীর্ষ এ পদগুলোতে নিয়োগ না দিয়ে এর পরিবর্তে কোথাও ‘ডেজিগনেটেড’ আবার কোথাও ‘ভারপ্রাপ্ত’ দিয়ে চালাচ্ছে। বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় আইন অনুযায়ী এ ধরনের পদে এভাবে নিয়োগ বা দায়িত্ব পালনের কোনোটিই বৈধ নয়।

এবার বিষয়টি নিয়ে কঠোর হচ্ছে ইউজিসি। ৬ মাসের অধিককাল যাবৎ আচার্য কর্তৃক নিযুক্ত ভিসি, প্রো-ভিসি ও ট্রেজারার না থাকালে ওই বিশ্ববিদ্যালয়কে লাল তালিকাভুক্ত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সংস্থাটি।‌ একইসঙ্গে লাল তারকা চিহ্নিত বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদেরকে ভর্তি না হতে পরামর্শ দিয়েছে কমিশন।

সম্প্রতি কমিশনের সদস্য অধ্যাপক ড. বিশ্বজিৎ চন্দের সভাপতিত্বে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় বিভাগের সমন্বয় সভায় এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। শিগগিরই এ সিদ্ধান্তের বিষয়ে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়সমূহকে অবহিত করা হবে বলে জানা গেছে।

সোমবার (১৯ জুলাই) ইউজিসির পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ইউজিসির অনুমোদন ছাড়া প্রোগাম ও কোর্স পরিচালনা এবং অনুমোদিত আসন সংখ্যার অতিরিক্ত শিক্ষার্থী ভর্তি করলে সংশ্লিষ্ট বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়কে লাল তারকা প্রদানের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। অনুমোদিত প্রোগ্রাম ও এর আসন সংখ্যা নিশ্চিত হয়ে তাদেরকে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়ারও আহ্বান জানিয়েছে ইউজিসি।

এতে আরও বলা হয়, কমিশনের অনুমোদনহীন ভবন ও ক্যাম্পাসে শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনা, ৬ মাসের অধিককাল যাবৎ আচার্য কর্তৃক নিযুক্ত উপাচার্য ও ট্রেজারার না থাকা, ট্রাস্টি বোর্ডের সদস্যদের মালিকানা সংক্রান্ত দ্বন্দ্বসহ অন্যান্য সমস্যার কারণেও বিশ্ববিদ্যালয়সমূহকে লাল তারকা প্রদান করা হবে।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ