বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপর আরোপিত কর প্রত্যাহার দাবিতে মানববন্ধন

বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপর আরোপিত কর প্রত্যাহার দাবিতে মানববন্ধন
বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপর আরোপিত কর প্রত্যাহার দাবিতে মানববন্ধন  © টিডিসি ফটো

বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপর আরোপিত কর প্রত্যাহারের দাবিতে মানববন্ধন করেছেন চট্টগ্রামের বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। আজ শনিবার (০৫ জুন) বিকেল ৩টায় নগরীরর প্রেস ক্লাবের সামনে ‘NO TAX ON EDUCATION’-এর ব্যানারে এ কর্মসূচির আয়োজন করা হয়।

মানববন্ধনের সঞ্চালনা করেন বিজিসি ট্রাস্ট বিশ্ববিদ্যালয় বাংলাদেশের আইন বিভাগের ৪র্থ বর্ষের শিক্ষার্থী সাইফুর রুদ্র। মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন ইস্ট ডেল্টা ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থী শাহরিয়ার রাফি, বিজিসি ট্রাস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী মো. আবু মহসিন, চট্টগ্রাম প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী তাসনিম আনিকা, বাংলাদেশ ইন্ডিপেন্ডেন্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী সৈয়দ ইনজাম, চট্টগ্রাম বিজিএমইএ ইউনিভার্সিটি অফ ফ্যাশন এন্ড টেকনোলজির শিক্ষার্থী প্রিতম বড়ুয়া, চট্টগ্রাম সাইন্স এন্ড টেকনোলজি ইনস্টিটিউটের শিক্ষার্থী সাকিব হোসেন।

মানববন্ধনে শিক্ষার্থীরা বলেন, বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসমূহ এই আরোপিত ট্যাক্সের টাকা শিক্ষার্থীদের কাছ থেকেই আদায় করবে। বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় অর্ডিন্যান্স অনুযায়ী বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসমূহ অলাভজনক প্রতিষ্ঠান। এখানে আয় বা লাভের প্রশ্ন নেই। সুতরাং ট্যাক্সের প্রস্তাব অযৌক্তিক।

বক্তারা বলেন, শিক্ষা কোন পণ্য বা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো কোন ব্যাবসায়ী প্রতিষ্ঠান নয়। একটি মৌলিক অধিকার নিয়ে এমন মুনাফালোভী কর প্রস্তাবনা শিক্ষার্থীরা প্রত্যাখান করছে।

তারা বলেন, গত ১ বছরে করোনা প্যানডেমিকের কারণে আমাদের পরিবারগুলো চলমান ফি দিতেও পারছেনা। অনেকের দীর্ঘ বেতন বকেয়া রয়েছে। অনেক শিক্ষার্থী পড়ালেখা থেকে দূরে সড়ে গেছে। এমতাবস্থায় এ প্রস্তাব বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা ব্যবস্থা নতুন করে বিপর্যয়ের মুখে পড়বে।

শিক্ষার্থীরা বিগত সময়ে ভ্যাট আরোপের প্রস্তাবের কথা স্মরণ করিয়ে দিয়ে বলেন, ২০১০ এবং ২০১৫ সালে এরূপ প্রস্তাবনা আনা হলে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মুখে তা প্রত্যাহার করে নিতে বাধ্য হয়েছিলো সরকার। আমরা স্পষ্ট হুঁশিয়ারি দিচ্ছি, অবিলম্বে কর প্রস্তাবনা বাতিল করা না হলে শিক্ষার্থীরা ইতিহাসের পুনরাবৃত্তি ঘটাতে দ্বিতীয়বার ভাববে না।

মানববন্ধন শেষে একটি বিক্ষোভ মিছিল প্রেসক্লাব, চট্টগ্রাম থেকে নগরীর আন্দরকিল্লা মোড়ে গিয়ে শেষ হয়।


মন্তব্য

এ বিভাগের আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ