প্রাথমিক শিক্ষকদের বদলি এক মাস পেছালো

প্রাথমিক শিক্ষকদের বদলি এক মাস পেছালো
প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর   © সংগৃহীত

অনলাইনে প্রাথমিক শিক্ষকদের বদলি একমাস পেছালো। চলতি মাসে শুরু হওয়ার কথা থাকলেও তা শুরু হবে আগামী সেপ্টেম্বরে। প্রাথমিক শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মো. আমিনুল ইসলাম খান এ তথ্য নিশ্চিত করেন। 

গত বুধবার বাংলাদেশ টেলিভিশনে সম্প্রচারিত একটি অনুষ্ঠানে এই তথ্য জানান তিনি। ওই অনুষ্ঠানে এক দর্শকের প্রশ্নে জবাবে তিনি বলেন, আমরা আশা করছি আগামী সেপ্টেম্বর মাসে অনলাইনে প্রাথমিক শিক্ষকদের বদলি কার্যক্রম শুরু করতে পারব।

তবে গত মাসে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর এ মাস থেকেই অনলাইনের মাধ্যমে বদলির ঘোষণা দিয়েছিল।

তিনি আরও জানান, প্রাথমিক শিক্ষকদের মত উপজেলা সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা ও উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তাদের বদলিও অনলাইনে করার পরিকল্পনা করছে সরকার। 

আরও পড়ুন: সহকারী জজ নিয়োগ প্রিলিমিনারি পরীক্ষার ফল প্রকাশ

আরেক প্রশ্নে জবাবে আমিনুল ইসলাম বলেন, নতুন এই পদ্ধতিতে বদলি প্রত্যাশী শিক্ষক অনলাইনে আবেদনটি করার পর সেটি প্রাথমিকভাবে যাচাই করবেন সংশ্লিষ্ট বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক। তিনিও ওই সফটওয়্যার ব্যবহার করেই যাচাই করে দেবেন উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তার কাছে। তিনি সেটি যাচাই করে পাঠাবেন জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তার (ডিপিইও) কাছে। ডিপিইও সেটি মঞ্জুর করে পাঠিয়ে দেবেন আবার উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তার কাছে। তিনি তখন বদলির বিষয়ে আদেশ জারি করবেন এবং শিক্ষক সেটি অনলাইনেই জেনে যাবেন।

আমিনুল ইসলাম খান আরো বলেন, প্রত্যেক ধাপে যাচাইয়ের জন্য দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা তিন দিন করে সময় পাবেন। এই তিনদিনের মধ্যে যাচাই করে নিষ্পত্তি না করলে সেটি স্বয়ংক্রিয়ভাবেই যাচাইয়ের জন্য নিয়োজিত পরবর্তী ব্যক্তির কাছে চলে যাবে। তখন নিষ্পত্তি না করার জন্য দায়িত্বপ্রাপ্ত ব্যক্তিকে কারণ দর্শানোর নোটিস দেয়া হবে।


x