প্রাথমিক নিয়োগ পরীক্ষার ফল কেন অবৈধ হবে না, জানতে চেয়ে রুল

রিট করেছেন কুষ্টিয়ার ৫ পরীক্ষার্থী
হকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার ফল পুনর্মূল্যায়ন চেয়ে রিট করেছেন কুষ্টিয়ার ৫ পরীক্ষার্থী  © ফাইল ছবি

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার ফল পুনর্মূল্যায়ন চেয়ে রিট করেছেন কুষ্টিয়ার ৫ পরীক্ষার্থী। রিটে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব, প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ও অধিদপ্তরের পরিচালককে (পলিসি অ্যান্ড অপারেশন) বিবাদী করা হয়েছে। শুনানি শেষে বিচারপতি জাফর আহমেদ ও বিচারপতি মো. আখতারুজ্জামান রুল জারি করেছেন।

রুলে গত ৯ জুন প্রকাশিত পরীক্ষার ফল কেন অবৈধ হবে না- জানতে চাওয়া হয়েছে। আবেদনকারীদের ফল কেন পুনর্মূল্যায়ন করা হবে না তাও জানাতে বলা হয়েছে। রুল জারির চার সপ্তাহের মধ্যে জবাব দিতে বলা হয়েছে।

রিটকারীরা হলেন- মো. তরিকুল ইসলাম, মো. রাশিদুল ইসলাম, তানজিন জাহান, আলী রাজ ও মোছা. রুমা খাতুন। গত ১২ জুন আবেদনকারীরা প্রাথমিকের ফল পুনর্মূল্যায়ন চেয়ে অধিদপ্তরের মহাপরিচালক বরাবর আবেদন করেন। এর সুরাহা না হওয়ায় তারা আদালতের শরণাপন্ন হন তারা।

আরো পড়ুন: স্থগিত এসএসসি পরীক্ষা কখন নেয়া হবে, জানালেন শিক্ষামন্ত্রী

আবেদনে বলা হয়েছে, লিখিত পরীক্ষায় তারা ভালো পরীক্ষা দিয়েছেন। পরিচিত অনেকেই উত্তীর্ণ হয়েছে তুলনামূলক খারাপ পরীক্ষা দিয়ে। ফলাফলে ভুল থাকতে পারে এ শঙ্কায় তারা পুনর্মূল্যায়ন চান।

এদিকে দ্বিতীয় ধাপের পরীক্ষার ফল পুনর্মূল্যায়ন চেয়ে প্রতিমন্ত্রী বরাবর আবেদন করেছেন ৪৬৬ পরীক্ষার্থী। তারা বলছেন, আশপাশের অনেকের চেয়ে ভালো পরীক্ষা দিয়েও উত্তীর্ণ হতে পারেননি তারা। রেজাল্ট শিট দেখে মনে হয়েছে একই সিরিয়ালে একজনের পর আরেকজন উত্তীর্ণ হয়েছেন। বিষয়টি সন্দেহজনক। এ অবস্থায় ফল পুনর্মূল্যায়নের আবেদন করেছেন তারা।


x