প্রাথমিকে শিক্ষকসহ অন্য পদের সংখ্যা বাড়ছে

শিক্ষক
প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির বৈঠক  © ফাইল ফটো

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষকসহ অন্য পদের সংখ্যা বাড়ছে। সেই সঙ্গে শিক্ষক ও সহায়ক জনবলের শূন্যপদে দ্রুত নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে। আজ রবিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির বৈঠকে মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে এ তথ্য জানানো হয়। 

কমিটির সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান ফিজারের সভাপতিত্বে বৈঠকে কমিটির সদস্য মেহের আফরোজ, আলী আজম এবং মোশারফ হোসেন বৈঠকে অংশ নেন। 

পরে সংসদ সচিবালয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীনে শূন্য পদের বিপরীতে এবং ছাত্র সংখ্যা অনুপাতে প্রয়োজনীয় সংখ্যক শিক্ষকসহ অন্যান্য সহায়ক জনবলের পদ সৃষ্টি ও নিয়োগ প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে। দ্রুত নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হবে।

এদিকে বৈঠকের কার্যপত্র থেকে জানা গেছে, সংসদীয় কমিটির সুপারিশের প্রেক্ষিতে প্রতি ১৫টি বিদ্যালয়ের জন্য একজন করে সহকারী শিক্ষা অফিসারের পদ সৃষ্টি এবং বিভাগীয় প্রার্থী হিসেবে প্রধান শিক্ষকদের সহকারী শিক্ষা অফিসার হিসেবে পদোন্নতির জন্য নিয়োগবিধি সংশোধন কার্যক্রম চলমান আছে।

বৈঠকে ঢাকা মহানগরী ও পূর্বাচলে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় স্থাপন ও অবকাঠামো উন্নয়নসহ দৃষ্টিনন্দন প্রকল্পের আওতায় ২০২০-২১ অর্থ বছরে যেসব বিদ্যালয়ে অবকাঠামো নির্মাণের ক্ষেত্রে কোনো আইনি জটিলতা নেই, সেসব বিদ্যালয় নির্বাচিত করে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে টেন্ডার প্রক্রিয়া দ্রুত সময়ের মধ্যে সম্পন্ন করার জন্য কমিটি সুপারিশ করেছে।

বৈঠকে জাতীয়করণ হয়েছে এমন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের যেসব শিক্ষক অদ্যাবধি বেতন পাননি যত দ্রুত সম্ভব তাদের বেতনপ্রাপ্তি নিশ্চিত করতে তাগিদ দেওয়া হয়। 

এছাড়াও সহকারী জেলা শিক্ষা অফিসার পদে (এডিপিও) পদে কর্মরতদের মধ্যে যোগ্যদের দ্রুত পদোন্নতির কমিটি সুপারিশ করে।

স্কুল ফিডিং প্রকল্পে পুনর্গঠিত ডিপিপিতে শিক্ষার্থীর মায়েদের সম্পৃক্ত করে এবং মানসম্মত খাবার নিশ্চিত করতে উপবৃত্তির অর্থের সঙ্গে নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ অতিরিক্ত বরাদ্দের বিষয়ে কমিটির পরবর্তী বৈঠকে অবহিত করার জন্য বলা হয়।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ