ক্লাস টেস্টে মূল্যায়ন

প্রাথমিকে বার্ষিক পরীক্ষার নম্বর কমছে

বার্ষিক পরীক্ষা
প্রাথমিক শিক্ষার্থী  © ফাইল ছবি

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বার্ষিক পরীক্ষা হয় ১০০ নম্বরের ভিত্তিতে। তবে এই নম্বর কমিয়ে আনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

জানা গেছে, সারাদেশের ৬৫ হাজার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বার্ষিক পরীক্ষা একই দিনে আয়োজন করা হবে। এই পরীক্ষা হবে ৬০ নম্বরে। আর ৪০ নম্বর দেওয়া হবে পাঁচটি ক্লাস টেস্টের ভিত্তিতে। এই দুটি নম্বর যোগ করে মূল্যায়ন করা হবে শিক্ষার্থীদের।

সূত্র জানায়, বাংলা, ইংরেজি, গণিত, বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয় এবং ধর্ম ও নৈতিক শিক্ষা এই তিনটি বিষয়ের ওপর শিক্ষার্থীদের মূল্যায়ন করা হবে। প্রতিটি বিষয়ের অন্তত পাঁচটি পরীক্ষা নিতে হবে শ্রেণি শিক্ষকদের। এই পরীক্ষার নম্বর হবে ২০। এই পাঁচটি পরীক্ষার প্রাপ্ত নম্বরের ৪০ শতাংশ এবং বার্ষিক পরীক্ষার ৬০ নম্বরের ভিত্তিতে রেজাল্ট তৈরি করা হবে। এই ফলাফল বিদ্যালয়গুলো প্রকাশ করবে।

না প্রকাশ না করার শর্তে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের এক কর্মকর্তা দ্যা ডেইলি ক্যাম্পাসকে বলেন, প্রাথমিক শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা আয়োজনের বিষয়ে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে আমাদের বেশ কিছু নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। এ বিষয়ে শিগগিরই নোটিশ আকারে জানিয়ে দেওয়া হবে।

তিনি আরও বলেন, পূর্বের ন্যায় ১০০ নম্বরের বার্ষিক পরীক্ষা আর থাকছে না। এই পরীক্ষা ৬০ নম্বরে নেওয়ার নির্দেশনা এসেছে। এছাড়া শিক্ষার্থীদের ক্লাস টেস্টের মাধ্যমে ৪০ শতাংশ নম্বর দিতে হবে। শিগগিরই বিদ্যালয়গুলোকে এ সংক্রান্ত নির্দেশনা দেওয়া হবে।


সর্বশেষ সংবাদ