ফিনল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রীর নাচের ভিডিও ভাইরাল

নাচ
ভাইরাল হওয়া ভিডিওর একটি দৃশ্য  © সংগৃহীত

ফিনল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী সানা মারিনের পার্টি করার ভিডিও ফাঁস হওয়ার পর তুমুল সমালোচনার মুখে পড়েছেন। ফাঁস হওয়া ভিডিওতে দেখা গেছে, তিনি দেশটির কয়েকজন সেলিব্রেটি ও বন্ধুদের সঙ্গে নাচতেছেন ও গান গাইছেন। এই ঘটনায় বিরোধী দলগুলোর সমালোচনার মুখে পড়েছেন তিনি। এক বিরোধী নেতা দাবি করেছেন, তার ড্রাগ টেস্ট করা উচিত। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি এখবর জানিয়েছে।

তবে ফিনিশ প্রধানমন্ত্রী মাদক গ্রহণের বিষয়টি অস্বীকার করে বলেছেন, তিনি কেবলমাত্র মদ্যপান করেছিলেন এবং উদ্ধতভাবে পার্টি করেছিলেন।

ভিডিও ভাইরাল হওয়ার বিষয়ে ফিনিশ প্রধানমন্ত্রী আন্না মারিন বলেন, আমি জানতাম বিষয়টি ভিডিও করা হচ্ছে; কিন্তু এটি জনসম্মুখে প্রকাশ করা হয়েছে এজন্য আমি ব্যথিত হয়েছি।

তিনি আরও বলেন, আমি নেচেছি, গেয়েছি এবং পার্টি করেছি। যা অবশ্যই বৈধ। আমি কোথাও যাইনি যেখানে মাদক বা মাদকাসক্ত ব্যক্তি আছে। আমার পারিবারিক জীবন আছে। আমার কাজের জীবন আছে এবং বন্ধুদের সঙ্গে সময় কাটানোর অলস সময় আছে। আমার বয়সী সবাই যে রকমটি করে।

আরও পড়ুন: ‘এমবাপেকে বলে দিন, মেসি ২২ বছরে ৪টি ব্যালন ডি অর জিতেছিল’

তিনি জানান, নিজের মধ্যে কোনো পরিবর্তন আনবেন না। এবং তার আশা বাকিরা এটি স্বাভাবিকভাবে নেবে।

তবে ফিনল্যান্ডের বিরোধী দলীয় নেতা রিক্কা পুরা বলেন, প্রধানমন্ত্রীর উচিত স্বেচ্ছায় ড্রাগ টেস্ট করা। কারণ তাকে নিয়ে সন্দেহ আছে। তবে আবার কয়েকজন বিরোধী দলের নেতা জানিয়েছেন, বিষয়টি নিয়ে মিডিয়া ও রাজনীতিবীদরা বেশি আলোচনা করছেন। যেটির কোনো প্রয়োজন নেই।

ফিনিশ প্রধানমন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, তিনি মাদক গ্রহণ করেননি এবং পরীক্ষা করাতে তার কোন সমস্যা নেই।

সান্না মারিনে ২০১৯ সালের ডিসেম্বর থেকে ক্ষমতায় আছেন এবং তার দলের সমর্থন ধরে রেখেছেন।


x

সর্বশেষ সংবাদ