জানেন না একে অপরের ভাষা, ট্রান্সলেটর ব্যবহার করেই প্রেম!

ঢাকা
ম্যাথু হারবিজ ও ম্যাডিনা   © সংগৃহীত

দুজনের মধ্যে পাঁচ হাজার মাইলেরও বেশি ভৌগোলিক ব্যবধান রয়েছে। তবে এর থেকেও বড় আরেকটি বাঁধা রয়েছে। তারা একে অপরের ভাষা বুঝেন না। তবুও তাদের মধ্যে কথোপকথন হতো। গুগল ট্রান্সলেটর ব্যবহার করে কথোপকথন করতেন অস্ট্রেলিয়ার ম্যাথু হারবিজ ও কাজাখিস্তানের ম্যাডিনা। এবার সেই বাঁধা পেরিয়ে পরিণয়-বন্ধনে আবদ্ধ হলেন তারা। খবর ভারতীয় সংবাদমাধ্যম আনন্দবাজার। 

এক প্রতিবেদনে আনন্দবাজার জানিয়েছে, ‘২০১৮ সালে বন্ধুদের সঙ্গে ম্যাডিনা অস্ট্রেলিয়াতে ঘুরতে গিয়েছিলেন। সেখানেই আলাপ হয় ম্যাথুর সঙ্গে। প্রথম দেখায় প্রেমে না পড়লেও একে অপরের সঙ্গে বন্ধুত্ব হয়ে গিয়েছিল। এরপর ম্যাডিনা দেশে ফিরে আসেন। তবে তাদের মধ্যে ম্যাসেজ চালাচালি অব্যাহত থাকে।’

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে, ‘ম্যাথুও ম্যাডিনার মাতৃভাষা কাজাখ বুঝতেন না, আবার ম্যাডিনা ইংরেজি জানতেন না। এক্ষেত্রে দুজনের যোগাযোগের একমাত্র অবলম্বন ছিল গুগলের অনুবাদ-প্রযুক্তি। এতেই বন্ধুত্ব ভালবাসায় গড়ায়। তবে প্রতি তিন থেকে চার মাস পরপর তারা দেখা করতেন।’

আরও পড়ুন : ইউরোপীয় স্কলারশিপ প্রাপ্তিতে বাংলাদেশি শিক্ষার্থীরা তৃতীয়

তবে করোনাকালীন সময়ে দেখা করা বন্ধ হয়ে যাওয়ার উপক্রম হয়। দীর্ঘ সময় শেষে ২০২১ সালের মে মাসে অস্ট্রেলিয়ার ভিসা পান ম্যাডিনা। এরপরও ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইন শেষে দেখা হয় দুজনের। তবে এই দীর্ঘ ১৪ দিন হোটেলের বাহিরে দাঁড়িয়ে থাকতেন ম্যাথু।

এর পরপরই বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হওয়ার সিদ্ধান্ত নেন তারা। অবশেষে এ বছরের জুন মাসে বিয়ে করেন তারা। তবে এখন আর গুগল ট্রান্সলেটের ভরসায় থাকতে চাইছেন না তারা। তাই অল্প অল্প করে একে অপরের ভাষা শিখছেন তারা। 


x

সর্বশেষ সংবাদ