হোটেল–রেস্তোরাঁয় ‘সার্ভিস চার্জ’ নিষিদ্ধ করল ভারত

হোটেল–রেস্তোরাঁয় ‘সার্ভিস চার্জ’ নিষিদ্ধ করল ভারত
সার্ভিস চার্জ

হোটেল-রেস্তোরাঁয় ক্রেতাদের কাছ থেকে আর সার্ভিস চার্জ নেওয়া যাবে না। সম্প্রতি এমন ঘোষণা দিয়েছে পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতের ভোক্তা সুরক্ষা কর্তৃপক্ষ। খবর বিবিসির। 

ভারতীয় বিভিন্ন গণমাধ্যম সূত্রে জানা গেছে, সোমবার (৪ জুলাই) নতুন একটি গাইডলাইন জারি করেছে দেশটির কেন্দ্রীয় সরকার। সেখানেই এই ঘোষণা করা হয়েছে। হোটেল-রেস্তোরাঁয় সার্ভিস চার্জ বিষয়ক অনৈতিক লেনদেন এবং ক্রেতাদের অধিকার লঙ্ঘন রুখতে এই গাইডলাইন চালু করা হয়েছে।  

রেস্তোরাঁগুলোয় বকশিশ দেওয়া নিয়ে কয়েক বছর ধরে ভারতে আলোচনা চলছিল। গ্রাহকেরা অভিযোগ তুলেছিলেন, তাঁদের কাছ থেকে যে বাড়তি অর্থ আদায় করা হবে, তা আগে থেকে জানানো হয় না।

২০১৭ সালে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের ভোক্তা অধিকার বিভাগ একটি নির্দেশনা জারি করে। তাতে বলা হয়, গ্রাহকেরা মেনু কার্ডের পণ্যের দাম ও সরকারি শুল্ক ছাড়া বাড়তি কোনো অর্থ পরিশোধ করবেন না।

আরও পড়ুন: ঢাবি শিক্ষক মোর্শেদকে বাসা ছাড়তেই হচ্ছে

ভোক্তা অধিকার বিভাগ বলছে, বকশিশ দেবেন কি না, সেটা গ্রাহকের ইচ্ছা–অনিচ্ছার বিষয়। অনুমতি ছাড়া বাড়তি মূল্য পরিশোধে গ্রাহকদের বাধ্য করাটা ‘বেআইনি ব্যবসায়িক কর্মকাণ্ডের শামিল।’

গত মাসেই সরকার ন্যাশনাল রেস্টুরেন্ট অ্যাসোসিয়েশন অফ ইন্ডিয়ার (এনআরএআই) সাথে আলোচনায় বসে। জানায়, তারা ভোক্তাদের কাছ থেকে অনেক বেশি মাত্রায় অভিযোগ পাচ্ছে। ক্রেতাদের অভিযোগ ছিল, তারা উচ্চ হারে সার্ভিস চার্জ দিতে বাধ্য হচ্ছে; এমনকি বিল থেকে এই চার্জ সরানোর অনুরোধ করলে তাদের হয়রানির শিকার হতে হয়।  

ভারতের অর্ধ মিলিয়নেরও বেশি রেস্তোরাঁর প্রতিনিধিত্বকারী সংস্থা এনআরএআই যদিও অভিযোগ অস্বীকার করে বলে, এটি একেবারেই ব্যক্তিগত নীতির বিষয় এবং এই ধরনের চার্জ গ্রহণ 'অবৈধ' নয়।   

উপরন্তু তারা আরও যুক্তি দেয়, এভাবে সার্ভিস চার্জ নেওয়ায় সরকারের জন্যও অতিরিক্ত রাজস্ব এসেছে কারণ রেস্তোরাঁগুলো গ্রাহকদের কাছ থেকে যা আদায় করে, তার ওপর ট্যাক্স দেয়। 

নতুন নির্দেশিকার ফলে এখন থেকে গ্রাহকেরা তাদের অভিযোগ অনলাইনে বা জাতীয় ভোক্তা হেল্পলাইনের মাধ্যমে জানাতে পারবেন।   


x

সর্বশেষ সংবাদ