পুতিনের ধমকে হার্ট অ্যাটাক রুশ প্রতিরক্ষামন্ত্রীর!

পুতিন ও সের্গেই
রুশ প্রেসিডেন্ট ও প্রতিরক্ষামন্ত্রী  © সংগৃহীত

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের ধমকে হার্ট অ্যাটাক করেছেন দেশটির প্রতিরক্ষামন্ত্রী সের্গেই শোইগু। এমনটিই দাবি করেছেন ইউক্রেনের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর উপদেষ্টা আন্তন গেরাশচেঙ্কো। খবর বিবিসির। গত ১১ মার্চ থেকে ২৩ মার্চ পর্যন্ত প্রকাশ্যে দেখা যায়নি সের্গেেইকে। ২৪ মার্চ রুশ প্রেসিডেন্টের সঙ্গে দেখা গেলেও সেটির সময় ছিলো খুবই স্বল্প। দীর্ঘদিন

প্রতিবেদনে বলা হয়, ইউক্রেনের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর উপদেষ্টা দাবি করেছেন রুশ প্রতিরক্ষামন্ত্রী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। তিনি ফেসবুকের এক পোস্টে লিখেন, ইউক্রেনে সামরিক অভিযানে সম্পূর্ণ ব্যর্থতার জন্য ধমকের সুরে পুতিনের ‘কঠোর অভিযোগের’ পর শোইগুর হার্ট অ্যাটাক হয়েছিল।

এদিকে রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ইউক্রেনের প্রথম ধাপের সামরিক অভিযান সফল হয়েছে। ইউক্রেনের নৌ ও সেনা বাহিনীর অধিকাংশই ধ্বংস হয়ে গেছে। এখন পূর্ব ইউক্রেনের দোনবাস অঞ্চলকে পুরোপুরি স্বাধীন করতেই বেশি জোর দেওয়া হবে। ইউক্রেনের লুহানস্ক অঞ্চলের ৯৩ শতাংশ ও ডোনেৎসকের ৫৪ শতাংশ নিয়ন্ত্রণ করছে বিদ্রোহীরা। এই দুই অঞ্চল মিলেই দোনবাস গঠিত।

আরও পড়ুন- গুগল ডুডলে বাংলাদেশের পতাকা

রাশিয়ার জেনারেল স্টাফের প্রধান সের্গেই রুডোস্কোই বলেন, অভিযানের প্রাথমিক ধাপ অনেকটা শেষ হয়েছে। ইউক্রেনের সামরিক বাহিনীর যুদ্ধের সম্ভাব্যতা উল্লেখযোগ্য হারে কমে গেছে। এখন দোনবাসকে মুক্ত করার লক্ষ্য নিয়েই আমাদের এগিয়ে যেতে হবে। তবে রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় হুশিয়ারি দিয়ে বলেছে, ইউক্রেনের আকাশ পথ অবরুদ্ধ করা হলে তাৎক্ষণিক জবাব দেবে দেশটি।

উল্লেখ্য, পশ্চিমা বিশ্বের দেশগুলোর সঙ্গে সুসম্পর্ক ও ন্যাটোতে যোগদানের ইচ্ছা প্রকাশ করায় ইউক্রেনে সামরিক অভিযান পরিচালনা করছে রাশিয়া। শুরুতে ইউক্রেনের সেনাদের কঠোর প্রতিরোধের মুখে পড়লেও ক্রমেই একের পর এক শহর দখলে নিচ্ছে রুশ সেনারা।


সর্বশেষ সংবাদ