দালালকে টাকা দিয়েও চাকরি হয়নি, প্রাণ দিলেন ইংরেজিতে মাস্টার্স যুবক

আত্মহত্যা
দালালকে টাকা দিয়েও চাকরি না পাওয়ায় এক যুবক প্রাণ দিয়েছেন   © প্রতীকী ছবি

চাকরির পরীক্ষায় টেকার পর দালালকে টাকা দিয়েছিলেন। তবে মেলেনি চাকরি। এতে ক্ষোভে নিজের জীবনটা দিয়ে দিলেন ইংরেজিতে স্নাতকোত্তর করা যুবক। তপন দলুই নামে ২৮ বছর বয়সী যুবকের বাড়ি ভারতের পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার দাসপুর থানার সুপার বুরালি গ্রামে।

হিন্দুস্তান টাইমস জানিয়েছে, ইংরেজিতে স্নাতকোত্তর করা তপন। পরিবার জানিয়েছে, বিএড করে এসএসসি পরীক্ষা দিয়েছিলেন। তাঁর নাম ছিল ওয়েটিং লিস্টে। দালালকে দিতে পাঁচ লাখ টাকা ঋণ নিয়েছিলেন। তবে শেষ পর্যন্ত চাকরি হয়নি। এই হতাশায় নিজের প্রাণই দিলেন তিনি।

অভিযোগ উঠেছে, চারবছর আগে কেশপুরের বিশ্বনাথপুরের দালালকে ঋণ নিয়ে টাকা দিয়েছিলেন তপন। চাকরি না পাওয়ায় অবসাদে ভুগতে থাকেন। রোজগারের জন্য কৃষিকাজ শুরু করেন। ছাত্রদের টিউশনি করাতেন। তবে ঋণ পরিশোধ করতে পারছিলেন না। দালালের কাছে টাকা ফেরত চেয়ে পাননি। শেষ পর্যন্ত তিনি আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার তাঁর মৃত্যু হয়।

আরো পড়ুন: মিয়ানমারে ৭ শিক্ষার্থীকে মৃত্যুদণ্ড দিল জান্তা সরকার

পরিবারের সদস্যরা জানান, বৃহস্পতিবার রাতে খাবার খান তপন। রাতে নিজের ঘরে শুতে গিয়ে প্রাণ কেড়ে নেওয়ার চেষ্টা করেন তপন। গুরুতর অবস্থায় তাঁকে একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থাতেয় শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটে তার। পরে মেদিনীপুর মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানেই শনিবার মৃত্যু হয় তাঁর।

উল্লেখ্য, এর আগে তৃণমূল নেতাকে ১৬ লাখ টাকা দিয়েও চাকরি না পাওয়ার অভিযোগ তোলেন মালদার দুই বোন। সে ঘটনায় গণপ্রহার করা হয় অভিযুক্ত নেতাকে। নিয়োগ দুর্নীতি নিয়ে আদালতে একাধিক মামলা চলছে। এরই মাঝে এ ধরনের ঘটনা সামনে আসায় কর্মসংস্থানের স্বচ্ছতা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে।


সর্বশেষ সংবাদ