কার বেতন বেশি হওয়া উচিত, এইচএসসি পাশ নাকি পিএইচডি ডিগ্রিধারীর?

ফেসবুক
ড. মো. কামরুল হাসান মামুন   © সংগৃহীত

আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক নিয়োগে টেনুর সিস্টেম চালু হওয়া উচিত। টেনুরড বা পার্মানেন্ট পদে নিয়োগ হওয়ার ন্যূনতম যোগ্যতা হওয়া উচিত পিএইচডি। কারো পিএইচডি থাকলে তাকে সরাসরি সহকারী অধ্যাপক হিসাবে নিয়োগ দেওয়া উচিত। সেখানে শিক্ষকতার অভিজ্ঞতা চাওয়া উচিত না। কারো ৩ বছরের পোস্ট ডক অভিজ্ঞতা থাকলে সেটাকে ৩ বছরের শিক্ষকতার অভিজ্ঞতা হিসাবে বিবেচনা করা উচিত যা ভারতে করে। প্রভাষক পদকে নন-টেনুরড বা টেম্পোরারি পদ হিসাবে ধরা উচিত। 

যেই প্রতিষ্ঠানে চাকুরীর ন্যূনতম যোগ্যতা পিএইচডি তার বেতন কাঠামোও সেইরকম হওয়া উচিত। কার বেতন বেশি হবে বা হয়? এসএসসি পাশ করা একজনের, নাকি আরও দুই বছর পড়াশুনার পর এইচএসসি পাশ করা জনের? কার বেতন বেশি হয় বা হওয়া উচিত? এইচএসসির পর দুই পড়াশুনার পর বিএ ডিগ্রিধারীর, নাকি চার বছরের অনার্স ডিগ্রিধারীর বেতন বেশি হবে?

কার বেতন বেশি হয় বা হওয়া উচিত? অনার্সের পর ১ বছরের মাস্টার্স ডিগ্রিধারীর বেতন বেশি হওয়া উচিত, নাকি মাস্টার্স বা অনার্সের পর আরও ৩ থেকে ৬ বছর পড়াশুনা ও গবেষণার পর পিএইচডি ডিগ্রিধারীর? কার মূল্য বেশি হয় বা হওয়া উচিত? একজন পিএইচডি ডিগ্রিধারীর মূল্য বেশি নাকি, পিএইচডি-র পর ২ থেকে ৪ বছরের পোস্টডক অভিজ্ঞতা সম্পন্ন কারো মূল্য বেশি?

এইজন্যই সকল শিক্ষকদের জন্য আলাদা বেতন স্কেল হওয়া উচিত। দক্ষিণ এশিয়ায় বাংলাদেশেই শিক্ষকদের বেতন সবচেয়ে কম। একটি দেশের মানবসম্পদের চেয়ে মূল্যবান সম্পদ আর কিছু হতে পারে না। সেই সম্পদ সৃষ্টির কারখানা হল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। আর সেই কারখানার কারিগর হল শিক্ষকদের। হার্ভার্ড অক্সফোর্ড বিশ্বসেরা হয়েছে তাদের কারিগরের জন্য তাদের ভবনের জন্য না। ভালো কারিগর নিয়োগ দিতে হলে শিক্ষকদের উপযুক্ত বেতন দিতে হবে।

আরও পড়ুন : বিবর্তন মানবা না তাহলে d/dt মানবা কিভাবে?

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের বিরাট একটি অংশ অন্য প্রতিষ্ঠানে পার্ট টাইম পড়ায়। কেউ কি সাধে নিজ ক্যাম্পাসের বাহিরে গিয়ে যানজট পেরিয়ে অন্যত্র পড়াতে যায়? যেই শিক্ষকের উচ্চতর ডিগ্রী আছে, জ্ঞান সৃষ্টি করছে তার বেতন যদি মোটা দাগে অপেক্ষাকৃত দুর্বল এবং সিম্পলি মাস্টার্স পাশদের বেতন ও অন্যান্য সুবিধা অনেক বেশি না হয় সেই দেশকে কখনো সভ্য দেশ বলা যাবে না। সেই দেশের সরকারকে কখনো সভ্য সরকার বলা যাবে না। পৃথিবীতে এমন কোন উন্নত দেশ পাওয়া যাবে না যেই দেশ খারাপ মানের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান দিয়ে উন্নত হয়েছে।

বাংলাদেশের সমাজে এখন অনেক উটকো সমস্যা দেখা দিয়েছে। এর মূল কারণ মানসম্পন্ন শিক্ষার অভাব। এই একটি মাত্র কাজ, যা হল মানসম্পন্ন শিক্ষা, নিশ্চিত করতে পারলে দেশের অধিকাংশ উটকো সমস্যা আপনা আপনি সমাধান হয়ে যাবে। মান সম্পন্ন শিক্ষার জন্য মানসম্পন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জরুরি। আর মান সম্পন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের জন্য উচ্চ মানের শিক্ষক দরকার।

আর উচ্চ মানের শিক্ষক নিয়োগ দিতে হলে উচ্চ মানের বেতন ও অন্যান্য সুবিধা দিতে হবে। উচ্চ মানের বেতন মানে শিক্ষকদের মিলিওনিয়ার বিলিওনিয়ার বানানোর কথা বলছি না। বিশ্বের কোন শিক্ষক মিলিওনিয়ার বা বিলিয়নিয়ার হওয়ার জন্য শিক্ষক হয় না। তবে সম্মানজনক একটা বেতন ও অন্যান্য সুবিধা ব্যতীত আমাদের গোল অর্জন সম্ভব না।


x