‘‘বজ্রপাত থেকে বাঁচতে শিক্ষাঙ্গনে-পার্কে তালগাছ লাগাতে হবে’’

বজ্রপাত, তালগাছ
কৃষি কর্মকর্তা মাকছুদুর রহমান   © ফাইল ফটো

সাম্প্রতিক বছরগুলোতে সারাদেশে বজ্রপাতের সংখ্যা বেড়ে গেছে। আর এতে প্রাণহানির সংখ্যাটাও বাড়ছে জ্যামিতিক হারে। কয়েক মাস আগে কয়েকজন শিক্ষার্থীও বজ্রপাতে মারা যান। বজ্রপাত বেড়ে যাওয়ার কারণ এবং বজ্রপাত প্রতিরোধে একজন শিক্ষার্থী-শিক্ষক কি দায়িত্ব পালন করতে পারেন এ নিয়ে দ্যা ডেইলি ক্যাম্পাসের সাথে কথা হয় উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা মাকসুদুর রহমানের সঙ্গে।

কৃষি কর্মকর্তা মাকসুদুর রহমান বলেন, ‘‘সাম্প্রতিক বছরগুলোতে সারা দেশে বজ্রপাতের পরিমাণ বেড়ে গেছে। তার একটাই কারণ আমরা লম্বা গাছগুলো বিশেষ করে তালগাছগুলো কেটে ফেলছি। তাল গাছ বজ্রপাত থেকে আমাদের রক্ষায় অতীব গুরুত্বপূর্ণ। শিক্ষক-শিক্ষার্থী এবং সচেতন মহলের উচিত বিষয়গুলো আমজনতাকে বুঝিয়ে বলে তাদের মাঝে সচেতনতা বৃদ্ধি করা।’

তিনি আরও বলেন, ‘‘ তাল গাছ আমাদের বন্ধু এবং প্রাকৃতিক ভারসাম্য রক্ষায় গুরুত্বপূর্ণ  ভুমিকা পালন করে।  আমাদেরকে তাল গাছগুলো রক্ষা করতে হবে, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান-রাস্তার ধারে, আবাদী-অনাবাদী জমিতে নতুন করে তাল গাছ লাগাতে হবে।’’

শহরে বজ্রপাত প্রতিরোধে প্রাকৃতিক ব্যবস্থা কেমন হওয়া উচিত এ প্রসঙ্গে মাকসুদুর রহমান বলেন, ‘‘শহরে আসলে বসবাসের জায়গারই যথেষ্ট অভাব রয়েছে। এরপরও কৃষি কর্মকর্তা হিসেবে পরামর্শ, অফিস-আদালত এবং শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোর আঙিনার একাংশে, পার্কে, খেলার মাঠে, সুইমিং পুলের একাংশে, পতিত নালার ধারে, খালের ধারে তালগাছ লাগানো যেতে পারে।’’


মন্তব্য

x