একই নামে বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্থকতা কি?

মতামত
লেখক  © ফেসবুক থেকে সংগৃহীত

কয়েক মাস আগে বলেছিলাম, আমাদের Osaka University সাথে অন্য একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের আইনি লড়াই শুরু হয়েছে। সারা বিশ্ব আমাদের এই বিশ্ববিদ্যালয়কে Osaka University হিসেবে জানে। জাপানে বাহিরে আবার কেউ মাঝে মধ্যে University of Osaka লিখে। তবে বিশ্ববিদ্যালয়টি বরাবরইOsaka University লেখে।

তবে ওসাকার প্রিফেকচার বিশ্ববিদ্যালয় তাদের নাম পরিবর্তন করে University of Osaka লিখতে চাইলে, তার বিরোধীতা করে ওসাকা বিশ্ববিদ্যালয়। যে বিশ্ববিদ্যালয়টির নামে সুনাম সারা বিশ্বে পরিচিত সেই বিশ্ববিদ্যালয়ের সদৃশ নাম আর একটি বিশ্ববিদ্যালয় গ্রহণ করতে পারে না। শেষ পর্যন্ত ওরা নাম পরিবর্তন করতে পারেনি।

জাপানের ঘটনায় পুনরাবৃত্তি হতে চলছে গোপালগঞ্জ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে। নানার সমস্যার মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়টি দাঁড়ানোর চেষ্টা যখন করছে, তখন সরকার একই নামে পিরোজপুরে আর একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুমতি দিচ্ছে।

গণমাধ্যমের খবর অনুযায়ী নতুন এই বিশ্ববিদ্যালয়টি নাম ‘‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়’। অন্যদিকে গোপালগঞ্জের বিশ্ববিদ্যালয়টির নামও একই।

সাধারণত, একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের একাধিক শাখা থাকলে একই নামে করা যায়। কিন্তু সম্পূন্ন স্বতন্ত্র আর একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম একই হওয়ার কোন যৌক্তিকতা আমি অন্তত দেখতে পাচ্ছি না।

বঙ্গবন্ধুর নামে যতগুলো বিশ্ববিদ্যালয় হয়েছে, সেইগুলোর নামের সাদৃশ থাকায় এইসব বিশ্ববিদ্যালয়ের পাশকৃত শিক্ষার্থীদের পরিচয় নিয়ে যেমন জটিলতা তৈরি হয়, তেমনি ভবিষ্যতে যারা উচ্চশিক্ষা গ্রহণ করতে যাবে, তাদের কেউ যদি ভুলক্রমে এই দুই বিশ্ববিদ্যালয় থেকে কোন নিদিষ্ট বিভাগে আবেদন করে, সেখানেও কনফিউশন তৈরি হবে বৈকি।

ঠিক কোন যুক্তিতে নীতি নির্ধারকরা একই নামে দুইটি স্থানে বিশ্ববিদ্যালয়গুলো নামকরণ করলো, তার সত্যি বোধগম্য নয়। তবে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মধ্যে ক্ষোভ তৈরি হবে তাতে কোন সন্দেহ নেই।

সরকারের উচিত ছিল আরো একটু সময় নিয়ে নামকরণ ঠিক করা। বঙ্গবন্ধুর নাম ঠিক রেখে অন্য একটি নাম নেয়া যেত, যেমন বঙ্গবন্ধু প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়। আমরা আর একটু উদার হতে পারি না কেন? বঙ্গবন্ধুর নামে অন্তত কয়েক ডজন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রয়েছে।

এবার যদি সৈয়দ নজরুল ইসলাম, তাজউদ্দিন আহমেদের নামে বিশ্ববিদ্যালয় হলে সমস্যা কোথায়? কিংবা পদার্থবিদ ওয়াজেদ মিয়া বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় নামকরণে বাধা কোথায়? বঙ্গবন্ধু বেঁচে থাকলে আমার বিশ্বাস, তাদের নামে বিশ্ববিদ্যালয় থাকতো।

এমনিতে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মান নিম্নমুখী। তারপর একই নামে একাধিক বিশ্ববিদ্যালয়, সত্যি বেমানান।

লেখক: জাপানের ওসাকা ইউনিভার্সিটিতে পোস্ট ডক্টরাল গবেষণায় নিয়োজিত


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ