রিটকারীদের আগে নিয়োগের সুযোগ নেই: এনটিআরসিএ

গণবিজ্ঞপ্তির ফল
এনটিআরসিএ কার্যালয়  © টিডিসি ফটো

আদালত অবমাননার অভিযোগ এনে বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষের (এনটিআরসিএ) বিরুদ্ধে রিট করেছেন প্রায় আড়াই হাজার চাকরিপ্রার্থী। রিটের প্রেক্ষিতে আদালত এই আড়াই হাজার প্রার্থীকে নিয়োগ দিতে বললেও সেই রায়ের স্থগিতাদেশ চেয়ে আপিল করেছে এনটিআরসিএ। এই আপিল নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত গণবিজ্ঞপ্তির ফল প্রকাশ কিংবা রিটকারীদের নিয়োগ কোনোটিই সম্ভব হবে না বলে জানা গেছে।

এনটিআরসিএ সূত্রে জানা গেছে, এনটিআরসিএর বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার যে অভিযোগ আনা হয়েছে সেটি ভিত্তিহীন। সেজন্যই আদালত যে রায় দিয়েছে তার উপর স্টে অর্ডার চেয়ে সর্বোচ্চ আদালতে আপিল করা হয়েছে। আপিল নিষ্পত্তি হওয়ার পর আদালত যে রায় দেবে সে অনুযায়ী পরবর্তী পদক্ষেপ নেবে এনটিআরসিএ।

আরও পড়ুন: এনটিআরসিএ'র আপিলের শুনানি সোমবার

সূত্র আরও জানায়, আগামী সোমবার (২১ জুন) আপিলের শুনানি অনুষ্ঠিত হতে পারে। এদিন রায় নিজেদের পক্ষে রাখার জন্য নিয়মিত প্যানেলের বাইরে একজন সিনিয়র আইনজীবীক নিয়োগ দিয়েছে এনটিআরসিএ। এছাড়া সমস্ত যুক্তিতর্ক উপস্থাপনের প্রস্তুতিও সম্পন্ন করেছে তারা।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে এনটিআরসিএর এক জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা দ্যা ডেইলি ক্যাম্পাসকে বলেন, রিটের নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত কোনো কার্যক্রমই করা সম্ভব হবে না। আমরা আশা করছি আগামী সোমবারের শুনানিতে হাইকোর্টের দেয়া রায় স্থগিত করবে আপিল বিভাগ। স্থগিতাদেশ দিলে আড়াই হাজার রিটকারীকে এককভাবে আর নিয়োগ দিতে হবে না।

ওই কর্মকর্তা আরও বলেন, এবার আদালত স্থগিতাদেশ দিলে রিটকারীরা আর আপিল করতে পারবে না। আমরা সেভাবেই প্রস্তুতি নিচ্ছি। স্থগিতাদেশ পাওয়ার পর খুব শিগগিরই ৫৪ হাজার শিক্ষক নিয়োগে গণবিজ্ঞপ্তির ফল প্রকাশ করা হবে।


মন্তব্য