রেইনট্রিতে ধর্ষণ মামলা: রায় হচ্ছে না আজও

রেইনট্রিতে ধর্ষণ মামলা: রায় হচ্ছে না আজও
  © ফাইল ছবি

আলোচিত রাজধানীর বনানীর রেইনট্রি হোটেলে দুই শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের ঘটনায় দায়ের করা মামলার রায় ঘোষণার সময় আবারও পিছিয়েছে। সিনিয়র আইনজীবী আব্দুল বাসেত মজুমদারের মৃত্যুতে আদালতের কার্যক্রম বন্ধ থাকায় আজকেও হচ্ছে না রায় ঘোষণা। মামলার রায়ের তারিখ পরে নির্ধারণ করে দেবেন বিচারক।

ফলে এ মামলার আসামি আপন জুয়েলার্সের মালিকের ছেলে সাফাত আহমেদ সহ অন্যরা ধর্ষণের দায়ে দণ্ডিত হবেন কি না, তা জানতে অপেক্ষা করতে হবে আরও কিছু সময়। 

বুধবার (২৭ অক্টোবর) ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৭-এর বিচারক বেগম মোছা. কামরুন্নাহারের আদালতে এই পাঁচ আসামির উপস্থিতিতে রায় ঘোষণার দিন ধার্য ছিল। কিন্তু সুপ্রিম কোর্টের সিনিয়র আইনজীবী আব্দুল বাসেত মজুমদারের মৃত্যুতে ঢাকা নিম্ন আদালতের সব বিচারিক কার্যক্রম স্থগিত করা হয়েছে। তাই এ মামলার রায় আজ হচ্ছে না।

আপন জুয়েলার্সের স্বত্বাধিকারী দিলদার আহমেদের ছেলে সাফাত আহমেদসহ পাঁচ জন এ মামলার আসামি। সাফাত ছাড়া অপর আসামিরা হলেন সাফাতের বন্ধু নাঈম আশরাফ ওরফে এইচএম হালিম, সাদমান সাকিফ, দেহরক্ষী রহমত আলী ও গাড়িচালক বিল্লাল হোসেন।

মামলার উভয়পক্ষের যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শুনানি শেষ হয় গত ৩ অক্টোবর। এরপর রায় ঘোষণার জন্য প্রথমে ১২ অক্টোবর দিন ধার্য করেন আদালত। কিন্তু অসুস্থতার কারণে বিচারক ছুটিতে থাকায় তা পিছিয়ে যায়। এরপর রায়ের জন্য নতুন তারিখ ধার্য করা হয় ২৭ অক্টোবরকে। আইনজীবীর মৃত্যুতে এই তারিখও পিছিয়ে গেল।  

মামলার অভিযোগ থেকে জানা যায়, ২০১৭ সালের ২৮ মার্চ রাত ৯টা থেকে পরদিন সকাল ১০টা পর্যন্ত আসামিরা মামলার বাদী এবং তার বান্ধবী ও বন্ধুকে আটকে রেখে ভয়-ভীতি দেখিয়ে বাদী ও তার বান্ধবীকে একাধিকবার ধর্ষণ করে আসামীরা। এ কাজে সহযোগীতা করে অন্যরা। 


মন্তব্য

x

সর্বশেষ সংবাদ