বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে এসএসসি পরীক্ষার্থীর অনশন

প্রতারণা
বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে এসএসসি পরীক্ষার্থীর অনশন  © প্রতীকী ছবি

নাটোরের গুরুদাসপুরে বিয়ের দাবিতে অনশনে বসেছে এক স্কুলছাত্রী। মঙ্গলবার (১৯ অক্টোবর) উপজেলার নাজিরপুর ইউনিয়নের গুপিনাথপুর গ্রামে মোমিনুলের বাড়িতে অনশন করছে ওই ছাত্রী।

স্থানীয় সূত্র থেকে জানা গেছে, ওই এলাকার হামিদ আলীর ছেলে মোমিন আলীর সঙ্গে এসএসসি পরীক্ষার্থী এক কিশোরীর গত ৬ মাস যাবৎ প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। সেই সম্পর্কের জেরে একাধিকবার দৈহিক সম্পর্ক গড়ে তোলে মোমিন। ওই মেয়ে একাধিকবার বিয়ের কথা বললেও বিভিন্ন অজুহাত দেখিয়ে সময় ক্ষেপণ করতে থাকে মোমিন। অবশেষে মঙ্গলবার বিকেল ৪টার দিকে মেয়েটি প্রেমিক মোমিনের বাড়িতে আসে। সেখানে পৌঁছালে তাকে মোমিন ও তার পরিবারের সদস্যরা ধাক্কা দিয়ে রাস্তায় ফেলে দিয়ে গেটে তালা দিয়ে পালিয়ে যায়। পরে ওই মেয়ে বিয়ের দাবিতে মোমিনের বাড়ির গেটের সামনের রাস্তায় বসে অনশন শুরু করেন।

এক পর্যায় মোমিনের প্রতিবেশী দাদা তাঁর বাড়িতে মেয়েটিকে আশ্রয় দেয়।

এ বিষয়ে প্রেমিক মোমিন আলী ও তার পরিবারের সদস্যরা পলাতক থাকায় কারও সঙ্গে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

অনশন করা ওই কিশোরী জানিয়েছে, আমার সঙ্গে মোমিন আলীর ছয় মাস ধরে সম্পর্ক। আমাকে মোমিন বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে একাধিকবার দৈহিক সম্পর্ক করেছে। বিয়ে করার কথা বললে বিভিন্ন অজুহাতে এড়িয়ে যায়। তাই বাধ্য হয়ে বিয়ের দাবিতে তার বাড়িতে অনশনের পথ বেছে নিয়েছি। মোমিন বিয়ে না করলে আমার আত্মহত্যা ছাড়া আর কোনো উপায় থাকবে না।

এ ব্যাপারে গুরুদাসপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আব্দুল মতিন জানান, এ ব্যাপারে এখনো কোনো অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে আইন অনুযায়ী প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ