চাঁদপুরের অর্ধশত গ্রামে ঈদ আজ

ঈদ
ঈদের নামাজ  © ফাইল ফটো

সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্যের সঙ্গে মিল রেখে আজ মঙ্গলবার (২০ জুলাই) চাঁদপুরের অর্ধশত গ্রামে পবিত্র ঈদুল আযহা উদযাপন করবেন মুসলিম সম্প্রদায়ের একাংশ। দেশের চাঁদ দেখার উপর নির্ভরশীল না হয়ে আরব বিশ্বের সঙ্গে সঙ্গতি রেখে দেশে আগাম ঈদের প্রবক্তা চাঁদপুরের হাজীগঞ্জের বড়কুল পশ্চিম ইউনিয়নের সাদ্রার হামিদিয়া ফাজিল মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা অধ্যক্ষ মরহুম মাওলানা আবু ইসহাক ইংরেজি ১৯২৮ সাল থেকে এ প্রথার প্রচলন শুরু করেন। 

সাদ্রা থেকে শুরু হয়ে ধীরে ধীরে দেশের বিভিন্ন এলাকায় সাদ্রা দরবার শরীফের অনুসারীগণ এ প্রথা চালু করার কারণে দেশের কয়েক শতাধিক গ্রামে এখন সাদ্রা দরবারের নিয়মে আগাম ঈদ পালিত হচ্ছে। 

আজ সকাল ৯টায় ঈদের জামাত হবে সাদ্রা দরবার শরীফ, সাদ্রা হামিদিয়া ফাজিল ডিগ্রী মাদ্রাসা মাঠে। সাদ্রা গ্রামে অনুষ্ঠিত হবে ৭টি ঈদের জামাত।

জানা গেছে, সাদ্রা দরবার শরীফে ঈদের জামায়াতের ইমামতি করবেন আল্লামা  জাকারিয়া চৌধুরী আল মাদানি। সাদ্রা দরবার শরিফের অনুসারীরা প্রায় ৯২ বছর ধরেই আরব দেশগুলোর সঙ্গে সঙ্গতি রেখে সাদ্রাসহ পাশের ৫০টি গ্রামসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে ঈদ উদযাপন করে থাকেন। 

সাদ্রা দরবার শরীফের পীর মাওলানা আরিফ চৌধুরী বলেন, মঙ্গলবার ঈদ পালনের জন্য আমরা সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছি। আগে ঘোষিত সময়ে সব স্থানে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে ও কোরবানি দেওয়া হবে।  

সাদ্রা ছাড়াও একদিন আগে ঈদ উদযাপন করা চাঁদপুরের গ্রামগুলো হলো- হাজীগঞ্জের হুরুমচাইল, অলীপুর, জাকনি, বাসারা, কাঁসারা, হোটনী, বেলচোঁ, মুন্সীরহাট, উচ্চঙ্গা, প্রতাপপুর, রামচন্দ্রপুর, মেনাপুর, শাচনমেঘ, খিলা, উভারামপুর, পাইকপাড়া, বিঘা, উটতলী,  শোল্লা, রূপসা, গোয়ালভাওর, কড়ইতলী, নয়ারহাট, মতলবের মহনপুর, এখলাসপুর, দশানী, নায়েরগাঁও, বেলতলীসহ বেশ কয়েকটি গ্রাম। 


মন্তব্য