ত্ব-হা আদনানের ভাগ্য নির্ধারণ আদালতে

ধর্মীয় বক্তা আবু ত্ব-হা মুহাম্মদ আদনান
ধর্মীয় বক্তা আবু ত্ব-হা মুহাম্মদ আদনান  © ফাইল ফটো

ধর্মীয় বক্তা আবু ত্ব-হা মুহাম্মদ আদনানকে উদ্ধারের পর আদালতে নিয়েছে পুলিশ। একই সঙ্গে তার তিন সহযোগীকেও আদালতে পাঠানো হয়েছে। তাদের চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে তোলা হয়েছে। আজ শুক্রবার (১৮ জুন) রংপুর মহানগর পুলিশের (আরএমপি) ক্রাইম ডিভিশনের উপ-কমিশনার আবু মারুফ হোসেন এ কথা জানিয়েছেন।

তিনি জানান, ব্যক্তিগত কারণেই আদনান গাইবান্ধার ত্রিমোহনীতে শিহাব নামের এক বন্ধুর বাড়িতে আত্মগোপন করেছিলেন বলে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানিয়েছেন। এ সময় তার তিন সঙ্গীও ছিলেন। ১০ জুন রাতে গাবতলী থেকে মোবাইল ফোন বন্ধ করে তারা গাইবান্ধায় আসেন এবং এতদিন সেখানেই ছিলেন।

আবু মারুফ হোসেন বলেন, শুক্রবার (১৮ জুন) দুপুর ২ টার দিকে খবর পেয়ে আমরা তার শ্বশুরবাড়ি মাস্টারপাড়া থেকে তাকে উদ্ধার করি এবং তার দুইসঙ্গী আমিরউদ্দিন ও মুহিত আমাদের হেফাজতে আছে ও আরেক সঙ্গী ফিরোজ আলমকে বগুড়া থেকে আনার প্রক্রিয়া চলছে।

মারুফ আরও জানান, ত্ব-হা নিখোঁজের ঘটনায় করা সাধারণ ডায়েরির (জিডি) আলোকে তিনজনকে আদালতে তোলা হয়েছে। এখন আদালতই এ বিষয়ে করণীয় ঠিক করবেন।

এর আগে, গত ১০ জুন দিবাগত রাত থেকে কোনো খোঁজ মিলছিল না আবু ত্ব-হা আদনানসহ তার দুই সঙ্গী আব্দুল মুহিত, মোহাম্মদ ফিরোজ ও গাড়িচালক আমির উদ্দিনের। সেদিন বিকেল ৪টার দিকে ওই তিনজনসহ আবু ত্ব-হা রংপুর থেকে ভাড়া করা একটি গাড়িতে ঢাকার পথে রওনা দেন। রাতে মোবাইল ফোনে সর্বশেষ কথা হলে তিনি সাভারে যাচ্ছেন বলে তার মাকে জানান।

এরপর রাত ২টা ৩৬ মিনিটে স্ত্রীর সঙ্গে মোবাইল ফোনে কথা হয় আদনানের। তিনি সাভার যাচ্ছেন বলেই জানান স্ত্রীকেও। তারপর থেকেই তার ফোন বন্ধ থাকায় আর যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি। পরদিন বিকেলে রংপুর মেট্রোপলিটন কোতেয়ালি থানায় জিডি করেন আবু ত্ব-হার মা আজেদা বেগম।


মন্তব্য