লকডাউনে ই-কমার্সের মাধ্যমে খাদ্য ও পণ্য পরিবহনে সরকারের ৪ নির্দেশনা

লকডাউন
  © প্রতীকি ছবি

করােনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরােধের দেশব্যাপী ৫ এপ্রিল থেকে শর্ত সাপেক্ষে সার্বিক কার্যাবলি চলাচলে নিষেধাজ্ঞা জারি হয়েছে। সংক্রমণ প্রতিরোধে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ই-কমার্সের মাধ্যমে খাদ্য ও অন্যান্য সামগ্রী পরিবহন ও ডেলিভারির বিষয়ে বিজ্ঞপ্তি প্রদান করেছে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। মঙ্গলবার (৬ এপ্রিল) প্রকাশিত ওই নির্দেশনায় উল্লেখ রয়েছে,

১। খাদ্য ও কৃষিজপণ্যসহ অন্যান্য অত্যাবশ্যকীয় পণ্য পরিবহনে নিয়ােজিত ট্রাক বা যানবাহন সার্বক্ষণিক চলাচল করতে পারবে।

২। অনলাইন বা ই-কমার্সের মাধ্যমে ক্রয়-বিক্রয়কে উৎসাহিত করা হচ্ছে। ই-কমার্সের ডেলিভারিম্যান সকাল ৬টা থেকে রাত ১২টা পর্যন্ত স্বাভাবিক চলাচল করতে পারবে।

৩। ডেলিভারিম্যান ও পণ্য পরিবহনে নিয়ােজিত ব্যক্তি ও যানবাহনের জন্য প্রয়ােজনীয় পরিচয়পত্র নিজ নিজ প্রতিষ্ঠান প্রদান করবে।ডেলিভারি কাজে নিয়ােজিত ডেলিভারিম্যান ও যানবাহনের জন্য ই-কমার্স এসােসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ই-ক্যাৰ) লোগো এবং সিরিয়াল নম্বর সম্বলিত পরিচিতিমূলক স্টিকার প্রদান করতে পারে।

৪। স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান এর সাথে সংশ্লিষ্ট রেস্টুরেন্টের রান্নাঘর সকাল ৬টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত খােলা রাখতে পারবে। এক্ষেত্রে রেস্টুরেন্টসমূহে বসে বা অবস্থান করে খাওয়া-দাওয়া করা যাবে না। শুধু পার্সেল এর মাধ্যমে খাবার ডেলিভারি দেয়া যাবে।

ডেলিভারিম্যান কোনোভাবেই রান্নাঘরে প্রবেশ করতে পারবেন না। প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্যবিধি মেনে কিচেনের বাইরে থেকে খাবার পার্সেল গ্রহণ করতে হবে এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে গ্রাহকের নিকট তা পৌঁছে দিতে হবে।

এ বিষয়ে খাবার ডেলিভারির সাথে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানসমূহ তাদের সাথে সংশ্লিষ্ট রেস্টুরেন্টের তালিকা সংশ্লিষ্ট জেলা প্রশাসকের নিকট তদারকির জন্য দাখিল করতে হবে। 


মন্তব্য