প্রথম টিকা নেওয়া নার্স রুনুকে প্রধানমন্ত্রী, ‘ভয় পাচ্ছো না তো!’

প্রথম টিকা নেওয়া নার্স রুনুকে প্রধানমন্ত্রী, ‘ভয় পাচ্ছো না তো!’
দেশে করোনার প্রথম টিকা নিচ্ছেন নার্স রুনা   © টিডিসি ফটো

ঢাকার কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে নার্স রুনু ভেরোনিকা কস্তাকে টিকা দেওয়ার মধ্য দিয়ে দেশে টিকাদান কর্মসূচি শুরু হয়েছে। বুধবার বিকেল ৪টা ৮ মিনিটে গণভবন থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভার্চ্যুয়ালি টিকাদান কর্মসূচির উদ্বোধন করেন।

টিকা নেওয়ার আগমুহূর্তে রুনুর উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘ভয় পাচ্ছো না তো!’ জবাবে রুনু বলেন, ‘না’।

এর আগে রুনু গণমাধ্যমকে বলেন, আমাদের দেখেই সাধারণ মানুষ বুঝতে পারবেন এই টিকা নিরাপদ।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে পাঁচজনকে টিকা দেওয়া হয়। এরপর আরও কিছু নির্বাচিত মানুষকে টিকা দেওয়ার কথা।

টিকাদান কর্মসূচি শুরুর মাধ্যমে করোনার সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে বাংলাদেশ আরও এক ধাপ এগিয়ে গেল। একই সঙ্গে টিকার মাধ্যমে করোনা মহামারি মোকাবিলার বৈশ্বিক প্রচেষ্টায় যুক্ত হলো বাংলাদেশ। আগামীকাল বৃহস্পতিবার রাজধানীর পাঁচটি হাসপাতালে প্রথম সারির পাঁচ শতাধিক স্বাস্থ্যকর্মীকে টিকা দেওয়া হবে।

কুর্মিটোলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ছাড়াও আগামীকাল স্বাস্থ্যকর্মীদের টিকা দেওয়ার জন্য প্রস্তুতি নিয়েছে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, মুগদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় ও বাংলাদেশ-কুয়েত মৈত্রী হাসপাতাল।

আগামী ৭ ফেব্রুয়ারি ৬৪ জেলায় ব্যাপকভিত্তিক টিকাদান শুরু হবে। করোনার টিকাদান কত দিন চলবে, তা এখনো কেউ নিশ্চিত করতে পারেনি। টিকার সম্ভাব্য পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া মোকাবিলায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিয়েছে।

উদ্বোধনের পর দেশের মানুষকে টিকা পেতে অনলাইনে নিবন্ধনের জন্য অ্যাপ ব্যবহার করতে হবে। যাদের জাতীয় পরিচয়পত্র নেই, তারাও টিকাদানকেন্দ্রে যোগাযোগ করে তালিকাভুক্ত হতে পারবেন।

করোনার টিকা নিতে আগ্রহী ব্যক্তিদের নিবন্ধন করতে হবে ‘সুরক্ষা’ নামক ওয়েব পোর্টালে (www.surokkha.gov.bd)। অ্যান্ড্রয়েড বা অ্যাপল প্লে স্টোর থেকে সুরক্ষা মোবাইল অ্যাপ ডাউনলোড করেও করা যাবে নিবন্ধন।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ